২৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সন্দীপ চক্রবর্তী: বুলবুলের প্রভাবে চাষে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আর তারপর থেকে সবজি বাজার আগুন। আলু, পিঁয়াজ কিনতে গিয়ে হাতে ছেঁকা গৃহস্থের। এই পরিস্থিতিতে মূল্যবৃদ্ধি রোধে টাস্কফোর্সের বৈঠকে বসলেন মুখ্যমন্ত্রী। আগামী সাত-আটদিনের মধ্যেই বাজারমূল্য নিয়ন্ত্রণে আসবে বলেই জানালেন রাজ্যের প্রশাসনিক আধিকারিক।

আলু, পিঁয়াজ থেকে নানা ধরনের সবজির হু হু করে বাড়ছে দাম। বাজারে গিয়ে নাভিশ্বাস গৃহস্থের। এই পরিস্থিতি ভাবাচ্ছে রাজ্য প্রশাসনকে। তাই তড়িঘড়ি বৃহস্পতিবার নবান্নে বৈঠক ডাকেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই বৈঠকে ছিলেন মুখ্যসচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, কৃষিদপ্তর, মৎস্যদপ্তরের আধিকারিক থেকে উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিকরাও। দীর্ঘক্ষণের বৈঠকে মূলত কীভাবে মূল্যবৃদ্ধি রোধ করা যায়, তা নিয়েই আলোচনা করা হয়। এদিনের বৈঠক শেষে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বুলবুলের দাপটে ক্ষতির জন্য কৃষকরা প্রচুর দামে শাকসবজি বিক্রি করছেন তা নয়। তবে অসাধু ব্যবসায়ীরা বেশি টাকা নিচ্ছে। ফড়েদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে নিয়ন্ত্রণে আসবে বাজারদর। স্বাভাবিক হবে পরিস্থিতি।”

[আরও পড়ুন: দিঘার হোটেলে সিলিং থেকে ঝুলছে মায়ের দেহ, রহস্যভেদ করল চার বছরের শিশু]

গৃহস্থের রান্নাঘরে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজনীয় আলু এবং পিঁয়াজের অস্বাভাবিক হারে মূল্যবৃদ্ধি নিয়েও চিন্তিত মুখ্যমন্ত্রী। এ প্রসঙ্গেও বৈঠকে আলোচনা হয়। আগামী জানুয়ারির প্রথম দিকেই নতুন আলু বাজারে আসবে। তাতে কিছুটা হলেও আলুর দাম কমানো সম্ভব হবে বলেই জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পিঁয়াজের দাম বৃদ্ধির নেপথ্যে যদিও কেন্দ্রীয় এক সংস্থাকেই দায়ী করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বাংলায় তারা পিঁয়াজ রপ্তানি করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েও সেই কথা রাখেনি বলেই অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আর তার জেরে ক্রমশই বাড়ছে পিঁয়াজের দাম। গৃহস্থের সুবিধায় সুফল বাংলার স্টলগুলিতে ইতিমধ্যেই ৫৯ টাকায় পিঁয়াজ বিক্রি করা হচ্ছে। সাধারণ মানুষের সুবিধায় আরও সুফল বাংলার স্টল বাড়ানোর চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের কথামতো আদৌ আগামী কয়েকদিনের মধ্যে বাজারদর কমে কি না, সেদিকে তাকিয়ে আমজনতা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং