১৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  বুধবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

রয়েছে অন্য কর্মসূচি, রাজভবনে রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠকে ‘না’ মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 17, 2020 12:59 pm|    Updated: January 18, 2020 8:25 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আবারও রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করলেন মুখ্যমন্ত্রী। শুক্রবার রাজভবনে জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠকের কথা ছিল। গণপিটুনি প্রতিরোধ এবং এসসি-এসটি বিল নিয়েই আলোচনার কথা ছিল। মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় অন্য এক কর্মসূচি থাকায় রাজ্যপালের ডাকা বৈঠকে যোগ দিতে পারবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

গত ১৩ জানুয়ারি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ট্যাগ করে টুইটে তিনি লিখেছেন, “আগামী ১৭ জানুয়ারি রাজভবনে দুপুর ২টোয় বিধানসভার সব দলকে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়েছি। পশ্চিমবঙ্গে গণপিটুনি প্রতিরোধ বিল ও পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিশন এসসি-এসটি বিল নিয়ে জানার জন্য এই বৈঠক। একদিকে বিল দু’টি নিয়ে কোনও তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। অন্যদিকে, বিধানসভা ও রাজ্য সরকারের তরফে অসমর্থনযোগ্য তথ্য জনসমক্ষে দেওয়া হচ্ছে। তাই বৈঠকে ডাকা হল বিধায়কদের।”

আমন্ত্রণ পাওয়ামাত্রই বাম এবং কংগ্রেস নেতারা যৌথভাবে সাংবাদিক বৈঠক করেন। তাতেই বিরোধী দলনেতা আবদুল মান্নান বৈঠক নিয়ে ইতিবাচক মতপোষণ করেন। বৈঠক নিয়ে যথেষ্ট আশাবাদী বলেই জানান আবদুল মান্নান। বৈঠকে কোনও আপত্তি নেই বলে জানান বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী। তবে শুক্রবার কলকাতায় না থাকার ফলে ওই বৈঠকে যোগ দিতে পারবেন না বলেই নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেন তিনি। বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য বৈঠক ডাকার প্রসঙ্গ তুলে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়কে সমর্থন জানিয়েছিলেন। বৈঠক ডাকা রাজ্যপালের দায়িত্ব বলেই জানান দিলীপ ঘোষ।

ওইদিন যদিও তৃণমূলের তরফে বৈঠক প্রসঙ্গে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে বৈঠকের ঠিক আগেই মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে রাজভবনে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বৈঠকে যোগ দেবেন না। কারণ হিসাবে মুখ্যমন্ত্রীর অন্য একটি কর্মসূচি রয়েছে বলেই উল্লেখ ছিল বিবৃতিতে।

An Images
An Images
An Images An Images