BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ২৬ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘বন্ধু’দের মারধরে প্রাণহানি! খাস কলকাতায় প্রৌঢ়ের মৃত্যুতে বিস্ফোরক অভিযোগ পরিবারের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 9, 2022 11:09 am|    Updated: May 9, 2022 11:16 am

Man died after 3 days of meeting friend, family accusses friends | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: নিমন্ত্রণ পেয়ে বন্ধুদের বাড়িতে গিয়েছিলেন বেহালার (Behala) পর্ণশ্রী থানা এলাকার বাসিন্দা বলিন্দর রাই। সবাই মিলে কথাবার্তা চলছিল। কিন্তু আচমকা ছন্দপতন। বন্ধুদের মধ্যে ঝগড়াঝাঁটির জেরে ঘটে গেল অপ্রত্যাশিত ঘটনা। বন্ধুদের বাড়ি যাওয়ার তিনদিনের মধ্যে মৃত্যু হল ওই প্রৌঢ়ের। এই ঘটনায় মৃতের পরিবারের লোকজন বন্ধুদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন। অভিযোগ, বন্ধুদের মারধরেই (Lynching) তাঁর মৃত্যু হয়েছে। অভিযুক্ত দুজনই পলাতক। তাঁদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পর্ণশ্রী থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, গত ৫ তারিখ পর্ণশ্রীর (Parnasree) মহেন্দ্র ব্যানার্জি স্ট্রিটের বাসিন্দা বলিন্দর গিয়েছিলেন বন্ধুদের বাড়ি। রাতে ফেরার সময় তাঁকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। আহত অবস্থায় রাস্তায় পড়ে ছিলেন বছর বাহান্নর বলিন্দর। পুলিশের অনুমান, বন্ধুরা তাঁকে তুলে নিয়ে গিয়ে স্থানীয় বিদ্যাসাগর হাসপাতালে ভরতি করান। এরপর ৭ তারিখ রাতে মৃত্যু হয় বলিন্দর রাইয়ের।

[আরও পড়ুন: একশো দিনের প্রকল্পে এবার মাদুরশিল্প! মেদিনীপুর সফরে ঘোষণা করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী

কীভাবে তাঁর মৃত্যু হল, তা জানতে দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। তবে বলিন্দরের পরিবারের দাবি, দুই বন্ধু মিলে তাঁকে প্রচণ্ড মারধর করে। তাতেই লুটিয়ে পড়েছিলেন বলিন্দর। এরপর নিজেদের দোষ ঢাকতে বন্ধুরাই হাসপাতালে নিয়ে যান। বলিন্দরের মৃত্যুর জন্য তারাই দায়ী বলে পর্ণশ্রী থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতের পরিবারের সদস্যরা। 

[আরও পড়ুন: বঙ্গে ‘অশনি’ সংকেতের মাঝে মন্দারমণিতে বিপত্তি, সমুদ্রে তলিয়ে মৃত্যু ২ তরুণ-তরুণীর]

পুলিশ জানতে পেরেছে, অভিযুক্তদের নাম মুকেশ সাউ, দিলীপ সাউ। বলিন্দরের মৃত্যুর পর থেকেই তাদের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। পলাতক দুজনই। ফলে পুলিশেরও প্রাথমিক সন্দেহ তাদের দিকে। তাদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে