BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পার্কিং নিয়ে বচসা, মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ার অদূরেই যুবককে বেধড়ক মার দুষ্কৃতীদের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 17, 2020 11:42 am|    Updated: September 17, 2020 1:54 pm

Miscreants quarrel over car parking near Mamata Banerjee's residence | Sangbad Pratidin

অর্ণব আইচ: পার্কিং নিয়ে বচসার জেরে রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটল মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ার অদূরেই। অভিযোগ, অশান্তির জেরে মেরে এক যুবকের চোখ ফাটিয়ে দেয় দুষ্কৃতীরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আয়ত্তে আনে পরিস্থিতি।

জানা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) বাড়ির অদূরেই অর্থাৎ ৩৬৬ কালীঘাট রোডে থাকেন বছর ৬৭-এর সজল সাহা। বুধবার রাতে তাঁর বাড়ির সামনে বাইক রাখে কয়েকজন যুবক। তাতে আপত্তি জানান সজলবাবু। এই নিয়েই শুরু হয় কথা কাটাকাটি। সেই সময়ই বাইকে বাড়ি ফেরেন ওই বৃদ্ধের ছেলে সঞ্জয়। তখন অভিযুক্তরা সঞ্জয়ের উপর চড়াও হয়। বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। গুরুতর চোট পান চোখে। অবস্থা বেগতিক বুঝে তড়িঘড়ি পরিবারের সদস্যরা ১০০ ডায়াল করে। কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। তাঁদের দেখেই ঘটনাস্থল ছাড়ে দুষ্কৃতীরা।

[আরও পড়ুন: করোনাকালেও দক্ষিণ কলকাতার ১৬ ওয়ার্ডে ডেঙ্গুর দাপট, উদ্বেগ বাড়ছে পুরকর্তাদের]

এরপর রাতেই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সঞ্জয়কে। বর্তমানে ওই যুবকের অবস্থা স্থিতিশীল। তবে চোখের আঘাত যথেষ্ট গুরুতর। আক্রান্তের দিদির কথায়, “রাতে পুলিশ ঠিক সময়ে না এলে আরও বড় অঘটন ঘটতে পারত।” জানা গিয়েছে, রাতের ঘটনার পর বৃহস্পতিবার সকালেও ওই বৃদ্ধের বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে বেশ কিছু পুরুষ ও মহিলা। যার জেরে আতঙ্কে কাঁটা গোটা সাহা পরিবার। উল্লেখ্য, শহর কলকাতায় পার্কিং একটা বড় সমস্যা। সমস্যা মেটাতে একাধিক ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফে। কিন্তু তাতেও সমস্যা নির্মূল হয়নি। তবে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির চত্বরে এহেন ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। খোঁজ শুরু হয়েছে অভিযুক্তদের। সূত্রের খবর, আক্রান্ত সঞ্চয় সাহাও অপরাধমূলক কাজের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

[আরও পড়ুন: জুটল না কম্বল, কলকাতায় হাসপাতালের এসি’র ঠান্ডায় নিউমোনিয়া হয়ে প্রাণ হারালেন বৃদ্ধ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে