BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সিমকার্ড হ্যাক করে লক্ষাধিক টাকা লুট শহরে

Published by: Bishakha Pal |    Posted: September 26, 2018 8:57 am|    Updated: September 26, 2018 8:57 am

Money looted via SIM cards

অর্ণব আইচ: পুরনো হয়ে গিয়েছে সিমকার্ড। এই কার্ড এবার বন্ধ করে দেওয়া হবে। তাড়াতাড়ি মেসেজ করুন। ‘মোবাইল সংস্থার’ কর্মীর কাছ থেকে এই ফোন পেয়ে একটু থমকে গিয়েছিলেন আনন্দপুরের বাসিন্দাটি। তাদের কথামতোই মেসেজ করেছিলেন। তার পরই ‘হ্যাক’ হয়ে যায় তাঁর মোবাইল। নিমেষে তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে এক লাখ টাকা তুলে নেয় হ্যাকাররা।

বনধের সকালে কার্যত স্বাভাবিক কলকাতা, রাস্তায় অতিরিক্ত সরকারি বাস ]

গত মে মাসে ঘটনাটি ঘটলেও চার মাস পর আনন্দপুর থানায় তিনি অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ জানিয়েছে, ওই সময় পূর্ব কলকাতার আনন্দপুরের আর আর প্লটের বাসিন্দা বারাণসীলাল সিং বিশেষ কাজে পাটনায় গিয়েছিলেন। একটি নম্বর থেকে তাঁর কাছে ফোন আসে। এক ব্যক্তি নিজেকে মোবাইল সংস্থার কর্মী বলে পরিচয় দেয়। বলে, যেহেতু তাঁর সিমকার্ডের বয়স প্রায় ২০ বছর হয়ে গিয়েছে, তাই তাঁর সিমকার্ডটি বন্ধ করে দেওয়া হবে। তাঁকে নতুন সিমকার্ড নিতে হবে। একটি মোবাইল নম্বর তাঁকে দেওয়া হয়। ওই নম্বরটি মেসেজ লিখে ১২১ নম্বরে তাঁকে মেসেজ করতে বলা হয়। ওই মেসেজ করামাত্রই বন্ধ হয়ে যায় তাঁর মোবাইল। পাটনায় ছিলেন বলে তিনি কিছুই করতে পারেননি। পাটনা থেকে কলকাতা ফেরার পর তিনি মোবাইল সংস্থাটির সঙ্গে যোগাযোগ করেন। নতুন সিমকার্ড নেন। মোবাইলে সেই সিম ভরা মাত্রই তাঁর ব্যাঙ্ক থেকে মেসেজ আসতে শুরু করে। বেসরকারি ব্যাঙ্কের মেসেজ পেয়েই তিনি জানতে পারেন, আনন্দপুর শাখায় তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে মোবাইল ব্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে তুলে নেওয়া হয়েছে এক লাখ টাকা। ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে তাঁকে জানানো হয়, তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। এর পরই তিনি আনন্দপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ জমা নিতে এবার থানায় থানায় বাক্স বসাচ্ছে ক্রেতা সুরক্ষা দপ্তর ]

এদিকে, ফের এটিএম জালিয়াতের উৎপাত শহরে। মধ্য কলকাতার গিরিশ পার্কের এক বাসিন্দা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করে জানান, তাঁর কাছেই ছিল তাঁর এটিএম কার্ড। অথচ একটি ই-ওয়ালেটের মাধ্যমে তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে ৮৮ হাজার টাকা। তাঁর এটিএম কার্ডের কোনও তথ্য তিনি কাউকে দেননি বলে  পুলিশকে জানিয়েছেন। দু’টি ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে