১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মহিলাকে স্তন্যদানে বাধা সাউথ সিটি মলে, পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাইল কর্তৃপক্ষ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: November 29, 2018 9:10 am|    Updated: November 29, 2018 9:10 am

Mother forced to stop breastfeeding at Mall

স্টাফ রিপোর্টার: সাউথ সিটি মলের মধ্যে শিশুকে স্তন্যপান করাতে গিয়ে অপদস্থ হতে হল এক মহিলাকে। অভিলাষা দাস অধিকারী নামে ওই মহিলার অভিযোগ, তিনি তাঁর কোলের শিশুকে মলে স্তন্যপান করাতে গেলে কর্মীরা এসে বাধা দেয়। মলকর্মীরা তাঁকে বলে, টয়লেটে গিয়ে স্তন্যপান করাতে। এই ঘটনায় চরম অপমানিত হন অভিলাষা। বুধবার তিনি তাঁর এই অপদস্থ হওয়ার কথা ফেসবুকে লেখেন। কিন্তু অভিলাষার পোস্টে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয় সাউথ সিটির মলের পক্ষ থেকে। অভিলাষাকেই কাঠগড়ায় তুলে মলের পক্ষ থেকে বলা হয়, হাস্যকর অভিযোগ। শপিং মলে প্রকাশ্যে স্তন্যদান আইনবিরুদ্ধ। ঘরের কাজ ঘরে সেরেই বেরনো উচিত। এরপরই ঝড় ওঠে সোশ্যাল মিডিয়ায়। মলের বিরুদ্ধে একের পর এক প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করে। শেষপর্যন্ত বুধবার সন্ধ্যায় মলের পক্ষ থেকে ফেসবুক পোস্টের জন্য ক্ষমা চেয়ে নেওয়া হয়। তবে তাতেও বিতর্ক থামেনি। ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয়েছেন সমাজকর্মীরা।

facebook post of abhilasha

অভিলাষার পোস্টের জবাবে কী লেখা হয়েছিল সাউথ সিটি মলের প্রোফাইল থেকে? সেখানে বলা হয়, “বাড়ির কাজ বাড়িতেই সেরে আসা উচিত, মল সেটির জায়গা নয়। মলটি ‘শপিং’-এর জায়গা। এমন নয়, আপনার বাচ্চাকে যে কোনও সময় স্তন্যপান করানো প্রয়োজন। আগে থেকে প্রস্তুতি রাখা উচিত।” মলের এহেন উত্তরের প্রতিবাদে অনেকেই অভিলাষাকে পরামর্শ দেন, নারী ও শিশুকল্যাণ দপ্তরে অভিযোগ জানাতে। শিক্ষাবিদ-সমাজকর্মী মীরাতুন নাহার একটি ওয়েবসাইটে প্রতিক্রিয়ায় বলেন, “মায়ের স্তন্যপান করেই সন্তান বড় হয়। অথচ সেই ভূমিকা ভুলে গিয়ে যৌন আকর্ষণের বিষয়ের বস্তু হিসাবে স্তনকে গণ্য করে মানুষ।” অভিলাষাকে টয়লেটে গিয়ে স্তন্যপান করানোর মতো কথা কেন বলা হয়, প্রশ্ন তোলেন সমাজকর্মীরা। টয়লেটে স্তন্যপান করানো অস্বাস্থ্যকর জেনেও মল কর্তৃপক্ষ কীভাবে বিষয়টিকে সমর্থন করছে, প্রশ্ন ওঠে তা নিয়েই।

মামার বাড়িতে ইঞ্জিনিয়ারের রহস্যমৃত্যু, উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ ]

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই জোরালো প্রতিবাদের জেরেই শেষমেশ আগের অবস্থান থেকে সরে নিঃশর্ত ক্ষমা চায় মল কর্তপক্ষ। বুধবার সন্ধে ছ’টা নাগাদ সাউথ সিটি মলের ফেসবুক পেজে ক্ষমা প্রার্থনা করে একটি পোস্ট করা হয়। মল কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়, ওই মহিলাকে যে উত্তরটি দেওয়া হয়েছিল, সেটি তাঁদের এক এজেন্ট করেছেন, যিনি তাঁদের ফেসবুক পেজটি চালনা করেন। মল কর্তৃপক্ষের দাবি, প্রতি ফ্লোরে শিশুদের পরিচর্যার জন্য আলাদা ঘর রয়েছে। তবে সংস্কারের কাজ চলার কারণে সেই পরিষেবা কয়েক দিন যাবৎ বন্ধ রয়েছে। তাঁরা আরও জানান, যে এজেন্ট ওই বিতর্কিত উত্তরটি দিয়েছিলেন, তাঁর বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তবে মলের এই বক্তব্যেও প্রতিবাদ থামেনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রমশ পারদ চড়ছে মল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। নেটিজেনদের দাবি, আলাদা ঘর কেন, প্রয়োজনে মলের যে কোনও জায়গায় শিশুকে স্তন্যপান করানো যায়। তাতে মল কর্তৃপক্ষের বাধা দেওয়ার কোনও এক্তিয়ার নেই।

আইএএস অফিসার সেজে বিয়ের নিমন্ত্রণ করতে থানায় হাজির যুবক! তারপর… ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে