১১ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ইডির তৃতীয় তলবে অবশেষে হাজিরা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 10, 2017 7:16 am|    Updated: August 10, 2017 7:23 am

Narada Sting: Kolkata Mayor Sovan Chatterjee in ED office

ছবি: ফাইল

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃতীয়বার নোটিস পাওয়ার পর অবশেষে ইডির দপ্তরে হাজিরা দিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার বেলার দিকে আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়ে সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে মেয়র যান। ইডির দপ্তরে ঢোকার আগে অবশ্য তিনি সাংবাদিকদের সামনে মুখ খোলেননি। নারদ কাণ্ডে ম্যাথুর থেকে কেন টাকা নিয়েছিলেন। ওই টাকা কোথায় গেল। এমনই কিছু তাঁকে প্রশ্ন করা হবে বলে সূত্রের খবর।

[নারদ কাণ্ডে আচমকা ইডির দপ্তরে হাজির ফিরহাদ হাকিম, মন্ত্রীর বয়ান রেকর্ড]

কিছু দিন চুপচাপ থাকার পর ফের নারদ কাণ্ড নিয়ে সক্রিয় হয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। রাজ্যের একাধিক মন্ত্রীকে তলব করেছে ইডি এবং সিবিআই। প্রথম তলবের পর বুধবার ইডির দপ্তরে গিয়েছিলেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তবে এই ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নোটিস দেওয়া হলেও তিনি নানা কারণে হাজিরা এড়িয়ে যান। কখনও দলীয় কাজ, কখনও মেয়র হিসাবে দায়িত্ব-এসব দেখিয়ে ইডি মুখো হননি মেয়র তথা দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়। ইডি তাঁর কাছে ফের নোটিস পাঠায়। তৃতীয়বার নোটিস পাওয়ার পর অবশেষে বৃহস্পতিবার ইডির অফিসে যান কলকাতার মেয়র। নারদ কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত শোভনবাবু বেলা বারোটা নাগাদ আইনজীবীকে সঙ্গে নিয়ে সিজিও কমপ্লেক্সে পৌঁছে যান। সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা না বলে লিফটে করে ৬ তলায় উঠে যান তিনি।

[লালঝান্ডা ফেলে এখন হাতে পুঁথি মজিদ মাস্টারের]

সূত্রের খবর, স্টিং অপারেশনে টাকা নেওয়ার যে ছবি দেখানো হয়েছিল তা মেয়রকে দেখানো হবে। ব্যবসায়ীর ছদ্মবেশে থাকা সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েলের সঙ্গে কীভাবে তাঁর পরিচয় হয়েছিল তা জানতে চাওয়া হবে। কেন শোভন চট্টোপাধ্যায় টাকা নিয়েছিলেন। সেই টাকা কোথায় গেল, এমন প্রশ্নের মুখে মেয়রকে পড়তে হতে পারে। ইডি সূত্রে খবর, তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন মেয়র ম্যাথুকে বলেছিলেন ভোটের পর তিনি তৃণমূলের এক শীর্ষ নেতার সঙ্গে কথা বলিয়ে দেবেন। এই বৈঠক আদৌ হয়েছিল বা বৈঠকে কী কথা হয় তাও জানতেও চাওয়া হতে পারে। এই সংক্রান্ত নথিপত্র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের চাওয়া হয়েছিল। তা খতিয়ে দেখা হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে