১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নারদ কাণ্ডে কণ্ঠস্বরের নমুনা জমা দিতে সিবিআই দপ্তরে গেলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। বুধবার সকাল সাড়ে এগারোটা নাগাদ কলকাতার নিজাম প্যালেসে যান প্রাক্তন মেয়র। প্রায় একঘণ্টা পর তিনি বেরোন সিবিআই দপ্তর থেকে। একইসঙ্গে এদিন নিজাম প্যালেসে কণ্ঠস্বরের নমুনা দেন তৃণমূল সাংসদ অপরূপা পোদ্দার।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলায় এনআরসি হবেই’, কলকাতায় এসে জোর গলায় বলে গেলেন স্মৃতি ইরানি]

এর আগে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে তলব করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেইসময় ব্যক্তিগত কাজে দিল্লিতে থাকার জন্য সিবিআই দপ্তরে যেতে পারেননি তিনি। তবে দ্বিতীয়বার তলব পেয়ে এদিন নিজাম প্যালেসে হাজির হন বিধায়ক। প্রসঙ্গত, নারদ স্টিং অপারেশনে টাকা নিতে দেখা গিয়েছিল প্রাক্তন মেয়রকে। কী কারণে তিনি টাকা নিয়েছিলেন, জেরায় সেকথাই জানতে চান গোয়েন্দারা। এদিন তাঁর কণ্ঠস্বরের নমুনাও সংগ্রহ করে তদন্তকারী আধিকারিকরা। এর আগে রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র, আইপিএস এসএমএইচ মির্জা, সাংসদ সৌগত রায়েরও কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এদিন শোভন ও অপরূপার নমুনা সংগ্রহ করলেন গোয়েন্দারা।

সম্প্রতি, নারদ স্টিং অপারেশনের তদন্তে নেমে ২৭ আগস্ট মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হয় স্যামুয়েল ও কেডি সিংকে। সেই জেরায় উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। স্যামুয়েলের দাবি, তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর স্টিং অপারেশন করতে বলেন কেডি সিং। সেই কারণেই তাঁকে টাকা দিয়েছিলেন কেডি। সেই তথ্য প্রথমে অস্বীকার করেন তৃণমূলের প্রাক্তন রাজ্যসভার সাংসদ। কিন্তু স্টিং অপারেশন সংক্রান্ত একটি মেসেজ গোয়েন্দারা দেখানোর পর মুখে কুলুপ আঁটেন কেডি। তদন্তে উঠে এসেছে, শুধু অভিষেকই নন, প্রত্যেকের উপরই স্টিং অপারেশন হয়েছে কেডি সিংয়ের নির্দেশেই। এমনটাই দাবি ম্যাথু স্যামুয়েলের।

[আরও পড়ুন: বিজেপির সিইএসসি ভবন অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং