BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নারদের নেপথ্যে কী, তদন্তের নির্দেশ মমতার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 18, 2016 9:13 am|    Updated: June 18, 2016 9:13 am

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: নারদ স্টিং কাণ্ডের নেপথ্যে কী? তা খুঁজতে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কলকাতা পুলিশের নগরপাল রাজীব কুমারকে এই দায়িত্ব দিলেন তিনি৷ শুক্রবার নবান্নে এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এই ঘটনায় বাংলাকে অপমানের চেষ্টা হয়েছে৷ জনমানসে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে৷ পিছনে কোনও চক্রান্ত আছে কি না তা খুঁজে বের করা দরকার৷ আমি চাই আসল সত্য উদঘাটিত হোক৷” মমতা একইসঙ্গে বুঝিয়ে দিয়েছেন, তদন্তে কেউ দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷
বিধানসভা ভোটের প্রচার শুরুর সঙ্গে সঙ্গে স্টিং কাণ্ড সামনে আসে৷ ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় শাসক দলের নেতা-মন্ত্রী, সাংসদরা টাকা নিচ্ছেন৷ পরিমাণ মোটের উপর ৪-৫ লক্ষ টাকা৷ উত্তাল হয়ে ওঠে ভোটের প্রচার৷ বিরোধীদের অভিযোগের জবাবে শাসক দল প্রশ্ন তোলে কী উদ্দেশ্য নিয়ে বেছে বেছে তৃণমূলকে স্টিং কাণ্ডে ফাঁসানো হয়েছে, তা খুঁজে বের করতে হবে৷ কেনই বা বেছে নেওয়া হল ভোটের সময়? এ বিষয়ে হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা চলছে৷ লোকসভার কমিটিও তদন্ত করছে৷ তবে এ সবের কোনও কিছুরই প্রভাব পড়েনি নির্বাচনে৷ শুধু তৃণমূলের ২১১ আসনে জয়ই নয়, যাঁদের বিরু‌দ্ধে অভিযোগ তারাও বিপুল ভোটে জিতে যান৷ খুব স্বাভাবিকভাবেই মানুষের রায় সামনে এসে যাওয়ার ঢাকা পড়ে যায় স্টিং কাণ্ড৷ কিন্তু এদিন আবার সেই প্রসঙ্গে তদন্তের নির্দেশ দিয়ে বোমা ফাটালেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এদিন ছিল বাজেট অধিবেশনের সূচনা৷ সেই পর্ব মিটিয়ে বিকেলে নবান্নে আসেন মুখ্যমন্ত্রী৷ ডেকে নেন মুখ্যসচিব ও স্বরাষ্ট্রসচিবকে৷ বৈঠকে মুখ্যসচিবকে দায়িত্ব দেন মমতা৷ তিনি জানান, তদন্ত করবেন নগরপাল রাজীব কুমার৷ যেহেতু বিধানসভা চলছে, সেইজন্য এই ঘোষণা করার আগে মুখ্যমন্ত্রী স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেও কথা বলে নেন৷
বস্তুত, নির্বাচনী প্রচারেই মুখ্যমন্ত্রী এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত দাবি করেছিলেন৷ এদিন সেই প্রসঙ্গও উত্থাপন করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “তদন্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম৷ দলের পক্ষ থেকে কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি ও সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় তদন্ত করছেন৷ সরকারিভাবে এবার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ এ নিয়ে মুখ্যসচিব বাসুদেব বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বরাষ্ট্রসচিব মলয় দে ও অন্যান্য আধিকারিকদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনা করেছি৷ তার পরই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি৷” মুখ্যমন্ত্রীর পাশে থাকা মুখ্যসচিব বলেন, “কোন পরিপ্রেক্ষিতে এই ঘটনা ঘটেছিল তাও তদন্ত করে দেখা হবে৷” মুখ্যমন্ত্রী বলেন,“যে ভিডিও ক্যাসেটটি দেখানো হয়েছে তা জাল না সত্য তাও তদন্ত করে দেখা হবে৷ তদন্ত করে সেই অনুযায়ী ব্যবস্থাও নেওয়া হবে৷”
এদিকে আজ, শনিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে তৃণমূলের সাংগঠনিক বৈঠক৷ গ্রামস্তর থেকে রাজ্য কর্মকর্তারা আমন্ত্রিত৷ একদিকে যেমন বিজয় উৎসবের আনন্দ, অন্যদিকে, সাংগঠনিক কঠোর বার্তাও থাকবে৷ দলের সাধারণ সম্পাদক করা হচ্ছে প্রবীর ঘোষালকে৷ তিনি মুখপাত্রের কাজও করবেন৷ এর বাইরে কিছু সিান্ত মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করতে পারেন বলে খবর৷ মুখ্যমন্ত্রীর তদন্তের সিান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন মুকুল রায়-সহ তৃণমূল নেতৃত্ব৷ তাঁরা সকলেই বলেছেন, সঠিক সিান্ত৷ সত্য উদঘাটিত হোক৷ তদন্তকে প্রহসন বলেছেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র৷ ডেরেক ও’ব্রায়েন পাল্টা বলেন, “সূর্যবাবুর ভয় কীসের?”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement