২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

রাজভবনে গরহাজির DGP, স্বরাষ্ট্রসচিব, সরাসরি মমতার সঙ্গে কথা বলতে চাইলেন ক্ষুব্ধ ধনকড়

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 5, 2020 11:27 am|    Updated: October 5, 2020 6:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টিটাগড়ের বিজেপি কাউন্সিলর খুনের ঘটনা ঘিরে ফের সংঘাত বাড়ল নবান্ন-রাজভবনের (Rajbhaban-Nabanna)। রবিবারের ঘটনা ঘিরে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন রাজ্যপালের জরুরি তলব পেয়েও সোমবার তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গেলেন না ডিজিপি, স্বরাষ্ট্রসচিব কেউই। তাতে আরও ক্ষুব্ধ হলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)। ফের টুইটারে ক্ষোভপ্রকাশের পর তিনি এবার সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলতে চাইলেন।

রবিবার রাতে টুইট করে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য রাজ্য পুলিশের ডিজি এবং স্বরাষ্ট্রসচিবকে জরুরি ভিত্তিতে তলব করেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। তাতে তিনি জানান যে সোমবার সকাল ১০টার মধ্যে যেন তাঁরা রাজভবনে যান, তাঁর সঙ্গে আলোচনার জন্য। সেই টুইটের পর নানা স্তরে জল্পনা শুরু হয়েছিল যে রাজ্যপালের ডাকে কতটা সাড়া দেবে নবান্ন। সকাল ১০টায় কী হয়, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রেখেছিল ওয়াকিবহাল মহল।

[আরও পড়ুন: এবার দলিত ইস্যুতে বিজেপিকে বিঁধলেন মমতা, রাজ্যে ধর্ষণ নিয়ে পালটা সরব গেরুয়া শিবির] 

বাস্তবে দেখা গেল, অন্যবারের মতো এবারও ধনকড়ের এই টুইট বার্তা বিফলেই গেল। রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র অথবা স্বরাস্ট্রসচিব এইচ কে দ্বিবেদী – কেউই রাজভবনমুখী হলেন না। নির্দিষ্ট সময়ে পেরিয়ে যাওয়ার পরও তাঁদের রাজভবনে না দেখে ফের ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ধনকড়। আরও একটি টুইট করেন তিনি। ফলে রাজ্যপাল-রাজ্য প্রশাসনের দ্বন্দ্ব আরও খানিকটা বাড়ল, তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন: টিটাগড়ের কাউন্সিলর খুনে আইনশৃঙ্খলা নিয়ে উদ্বিগ্ন ধনকড়, DGP, স্বরাষ্ট্রসচিবকে জরুরি তলব]

এর আগেও বেশ কয়েকবার রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগপ্রকাশ করে তিনি রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্রর সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিলেন। একাধিকবার এ নিয়ে টুইট করেন। কিন্তু কোনওবারই ডিজিপির দিক থেকে ইতিবাচক সাড়া না পেয়ে তিনি যথেষ্ট ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং ডিজিপির বিরুদ্ধে শাসকদলের হয়ে কাজ করার মতো গুরুতর অভিযোগও আনেন। তার পালটা প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রীও। তিনি পালটা প্রশ্ন করেন, রাজ্য পুলিশের সর্বোচ্চ পদাধিকারীকে কেন এত অপমান? তারপরও অবশ্য নিজের অবস্থানে অনড় থেকে ধনকড় বিজেপি কাউন্সিলর খুনের ঘটনায় ফের ডেকে পাঠান ডিজি, স্বরাষ্ট্রসচিবকে। তবে এবারও তাঁরা সাড়া দেননি। এখন দেখার, মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে রাজ্যপালের কথোপকথন হয় কি না।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement