BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শহরে মাদকের চোরকারবার চালাচ্ছে দুই নাইজেরীয় ফুটবলার!

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: October 31, 2018 9:10 pm|    Updated: October 31, 2018 9:10 pm

Nigerian footballer involved in drug smuggling in the city

প্রতীকী ছবি।

অর্ণব আইচ: মাদক চক্রে যুক্ত কলকাতার দুই নাইজেরীয় ফুটবলার। যুক্ত নাইট ক্লাবের দুই ডিজে-ও। গোয়েন্দা পুলিশের জেরার মুখে এই তথ্য জানাল ধৃত নাইজেরীয় যুবতী ওকুসান ক্রিস্টিয়ানা। কলকাতায় কোকেন পাচার করার অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করেছেন কলকাতার গোয়েন্দারা। তাকে জেরা করে এই দুই ফুটবলার ও নাইট ক্লাবের ডিজে-র জড়িত থাকার বিষয়টি যাচাই করছেন গোয়েন্দারা। ধৃত যুবতী গোয়েন্দাদের কাছে দাবি করেছে, এই তথ্যগুলি জানে তাদের চক্রের এক মাথা, যে দিল্লি থেকে তার হাতে কোকেন তুলে দিয়েছে। তাকে জেরা করে কলকাতার মাদক পাচারকারীদের সন্ধান চলছে।

[ দমদম বিমানবন্দরে মাদক-সহ গ্রেপ্তার নাইজেরীয় তরুণী]

পুলিশ জানিয়েছে, আফ্রিকার কয়েকটি দেশ থেকেও অনেক সময় গোপনে নিয়ে আসা হয় এই মাদক। অনেক পাচারকারী প্লাস্টিকে মুড়ে মাদক গিলেও ফেলে। বিদেশ থেকে এই মাদক প্রথমে মুম্বই বা দিল্লি ও সেখান থেকে কলকাতায় পাচার করত কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে এই মাদক পাচারের মাথা এখন দিল্লিতে রয়েছে না কি সেখান থেকে মুম্বই বা অন্য কোনও শহরে পালিয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এদিকে, প্রাথমিকভাবে কলকাতায় নাইজেরীয় মাদক পাচারের যে এজেন্টদের পরিচয় পাওয়া গিয়েছে, তাদের সন্ধানে ইতিমধ্যেই শহরজুড়ে তল্লাশি শুরু করেছেন লালবাজারের গোয়েন্দারা।

গোয়েন্দাদের কাছে খবর, ওই নাইজেরীয়রা বেশ কিছুদিন ধরেই কলকাতায় রয়েছে। তারা কোন ফুটবল ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত, তা জানার চেষ্টা চলছে। নাইটক্লাবের ওই দুই ডিজে-ও এই শহরের বাসিন্দা। তারা মাদক বিক্রির সঙ্গে সঙ্গে নিজেরাও মাদক গ্রহণ করে। তাদের একজনের হাতেই উদ্ধার হওয়া ২৫ গ্রাম কোকেন তুলে দেওয়ার কথা ছিল ওই নাইজেরীয় যুবতীর। কলকাতার ওই তারা যে ওই যুবতীর অত্যন্ত পরিচিত, সেই বিষয়ে অনেকটাই নিশ্চিত গোয়েন্দারা। যদিও গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকেই যুবতী দাবি করে, প্রথমবারের জন্য সে কলকাতায় মাদক পাচার করতে এসেছে। বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে বাইপাসে আসার কথা ছিল তার। সেখানেই এক ব্যক্তির সঙ্গে শহরে একটি জায়গায় যাওয়ার কথা ছিল তার। ওই আস্তানায় হাতবদল হত মাদক। ওই যুবতী প্রথমে একটি হোটেলের কথা বললেও পুলিশের ধারণা, শহরে নাইজেরীয়দের কোনও আস্তানায় নিয়ে যাওয়া হত যুবতীকে। এই আস্তানার সন্ধান চালিয়ে এজেন্টদের খোঁজ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[কনফার্ম টিকিটেও মেলেনি সিট, ট্রেনের শৌচালয়ের সামনে বসে সফর পরিবারের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে