BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বৃদ্ধার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার কলকাতার অভিজাত এলাকায়, খুন নাকি আত্মহত্যা? তদন্তে পুলিশ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 2, 2021 12:35 pm|    Updated: November 2, 2021 1:37 pm

Old woman found dead into her appartment at Theatre Road, high level officers of Kolkata Police rushed to the spot | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: সাতসকালে বৃদ্ধার রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল খাস কলকাতায় (Kolkata)। থিয়েটার রোডের একটি আবাসনের ঘটনা। খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে সেখানে পৌঁছয় শেক্সপিয়র সরণি থানার পুলিশ। ঘটনায় বড়সড় রহস্যের আভাস পেয়ে ঘটনাস্থলে যান কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের (DD) উচ্চপদস্থ কর্তারা। গিয়েছেন জয়েন্ট সিপি, ক্রাইম, ডিসি সাউথ আকাশ মেঘারিয়া।

পুলিশ সূত্রে খবর, থিয়েটার রোডের গঙ্গা-যমুনা অ্যাপার্টমেন্টে থাকতেন ৯০ বছরের এক বৃদ্ধা ও তাঁর ছেলে। অভয় চৌধুরী নাম তাঁর ছেলের। মঙ্গলবার সকালে অভয় আবাসনের ছাদে ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়েছিলেন। সকাল ১০টা নাগাদ তিনি নিজের ফ্ল্যাটে ফেরেন। তারপর মায়ের ঘরে ঢুকে দেখেন, মৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন তাঁর মা। নাকের পাশ থেকে রক্ত বেরচ্ছে। আঁতকে ওঠেন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেন পুলিশে। শেক্সপিয়র সরণি থানার (Shakespear Sarani PS) পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। মৃত্যু ঘিরে রহস্য দানা বেঁধেছে।

[আরও পড়ুন: দিওয়ালির আগে বিহার থেকে কলকাতায় অস্ত্র পাচারের ছক, ন’টি আগ্নেয়াস্ত্র-সহ গ্রেপ্তার ১]

অভয়ের অনুমান, ফ্ল্যাটে তাঁর অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে কেউ তাঁর মাকে খুন করেছে। কিন্তু কে বা কারা এর সঙ্গে জড়িত, কীভাবেই বা হত্যা করা হয়েছে, সেসব খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ডিসি, সাউথ (DC, South) আকাশ মেঘারিয়া নিজে ঘটনাস্থলে গিয়ে সব খতিয়ে দেখছেন। সংবাদমাধ্যমে এনিয়ে তিনি বিশেষ কিছু বলতে চাননি। জানিয়েছেন, ”একটা ঘটনা ঘটেছে। যিনি মারা গিয়েছেন, তাঁর ৯০-৯১ বছর বয়স। মৃতদেহে লেগেছিল রক্ত। মার্ডার কেস কি না, আমরা সবটা খতিয়ে দেখছি।”

[আরও পড়ুন: নার্সিংহোমের ম্যানেজার পরিচয়ে লক্ষাধিক টাকা জালিয়াতি, অভিযুক্তকে চেনেই না কর্তৃপক্ষ!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে