BREAKING NEWS

০৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রোগী মৃত্যুতে নার্সিংহোমে ভাঙচুর, গাফিলতির অভিযোগে মারধর চিকিৎসককে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 21, 2018 10:30 am|    Updated: August 6, 2019 4:05 pm

Patient death: Topsia nursing home vandalized

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাতসকালে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগে ধুন্ধুমার তপসিয়ায়। নার্সিংহোমে তুমুল ভাঙচুর চালালেন রোগীর পরিবারের লোকেরা। রেহাই পাননি ওই নার্সিংহোমের এক চিকিৎসকও। অভিযোগ, তাঁকে বেধড়ক মারধর করেছেন মৃতের বাড়ির লোকেরা। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। প্রগতি ময়দান থানায় নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবারের লোকেরা।

[থানায় ঢুকে ২ এসআইকে মারধর, খুনের হুমকি যুবকের]

মৃতের নাম মুশারফ আলি। স্নায়ুর সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। প্রথমে তাঁকে মল্লিকবাজারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করেছিলেন পরিবারের লোকেরা। মঙ্গলবার রাতে মুশারফকে আনা হয় তপসিয়ার ওই নার্সিংহোমে। বুধবার সকালে মারা যান তিনি। এরপরই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগে তুলে নার্সিংহোমে ভাঙচুর শুরু করে দেন মৃতের পরিবারের লোকেরা। নার্সিংহোমে কর্তব্যরত এক চিকিৎসককেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। পরিবারের লোকেদের দাবি, মল্লিকবাজারে বেসরকারি হাসপাতালে থাকাকালীন অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন মুশারফ আলি। কিন্তু, মঙ্গলবার রাতে আচমকাই তাঁকে তপসিয়ার ওই নার্সিংহোমে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। অভিযোগ, তপসিয়ার নার্সিংহোমে ভরতি হওয়ার পর কার্যত কোনও চিকিৎসাই হয়নি মুশারফের। বুধবার ভোররাতে বাড়িতে ফোন করে জানানো হয়, মুশারফ আলির শারীরিক অবস্থা সংকটজনক। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি ওই নার্সিংহোমে চলে আসেন পরিবারের লোকেরা। কিন্তু, নার্সিংহোমে পৌঁছে তাঁরা জানতে পারেন, মুশারফ মারা গিয়েছেন।

[টিটাগড়ে শুটআউট, ভাইপোর হাতে খুন প্রাক্তন কাউন্সিলর]

নার্সিংহোমে ভাঙচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় তপসিয়া থানার পুলিশ। আসেন পুলিশের পদস্থ আধিকারিকরা। পরিবারের লোকেদের বুঝিয়ে কোনওমতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। প্রগতি ময়দান থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতের পরিবারের লোকেরা।

[বাদ পড়া হাতে ‘অশরীরী’ ব্যথা, মুক্তি দিচ্ছে আয়নার জাদু]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে