Advertisement
Advertisement
Madan Mitra

এসএসকেএমের ‘ক্ষত’ ভুলিয়ে দিল মেডিক্যাল, মদন মিত্রের রেফার করা রোগীর চিকিৎসা শুরু

মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন তৃণমূল বিধায়ক।

Patient referred by Madan Mitra admitted in Kolkata Medical College after refused by SSKM, treatment started | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:May 21, 2023 5:23 pm
  • Updated:May 21, 2023 5:26 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এসএসকেএম ও মদন মিত্রর (Madan Mitra)টানাপোড়েন শনিবার প্রায় দিনভর চর্চায় ছিল। রাজ্যের সুপারস্পেশ্যালিটি সরকারি হাসপাতালে রোগী ভরতি করাতে গিয়ে প্রত্যাখ্যাত কামারহাটির বিধায়ক ওইদিন দফায় দফায় বিস্তর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। পালটা তাঁর আচরণ নিয়ে এসএসকেএম (SSKM)কর্তৃপক্ষও অভিযোগ দায়ের করেছে। তবে রবিবার এই চিত্রে খানিকটা বদল। এসএসকেএমের ‘ক্ষত’ ভুলিয়ে দিল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল (Kolkata Medical College and Hospital)। মদন মিত্রর পাঠানো রোগীর চিকিৎসা শুরু হয়েছে এই হাসপাতালে। শুধু তাইই নয়, মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ তাঁকে ফোন করে এই খবর জানিয়েছেন। রবিবার সকালে রোগীকে দেখতে গিয়ে মেডিক্যালের কর্তৃপক্ষকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন মদন মিত্র। সেইসঙ্গে বিশেষভাবে উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকার কথা।

রবিবার দুপুরে মেডিক্যালের সামনে থেকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন কামারহাটির (Kamarhati) বিধায়ক। বলেন, ”কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ এগিয়ে এসেছে। এখান থেকে আমাকে ফোন করে বলা হয়েছে, চলে আসুন, এখানে বেড-সহ সমস্ত ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেই রোগী এখানে ভরতি হয়েছে। আমি তাঁকে দেখতে এসেছিলাম। আমি বলি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকলের প্রতি মানবিক। আমি তাই তাঁর সঙ্গে সবসময় আছি। সেদিন এসএসকেএমের ব্যবহারে দুঃখ পেয়েছিলাম।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: ‘সব মহিলা আইনের কাছে পৌঁছতে পারেন না’, নারী অধিকার নিয়ে সরব বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়]

ঘটনার সূত্রপাত শুক্রবার রাতে। বাইক দুর্ঘটনায় (Accident) জখম এক যুবককে নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালের ট্রমা কেয়ার ইউনিটে ভরতি করাতে গিয়েছিলেন স্বয়ং মদন মিত্র। কিন্তু সেখানে রোগীর চিকিৎসা হয়নি। বেড খালি নেই বলে তাঁকে জানানো হয়। বিধায়ক নিজে মেডিক্যাল অফিসারের সঙ্গে কথা বলতে চান। কিন্তু সুরাহা হয়নি তাতে। এরপর তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যকে ফোন করে বিষয়টি জানান। সমাধান মেলেনি তাতেও। ক্ষোভে ফেটে পড়েন মদন মিত্র। সিপিএম আমলে ১ মিনিটেই হাসপাতালে রোগী ভরতি করানো যেত, এমন মন্তব্য করে এই মুহূর্তে হাসপাতালের পরিষেবা নিয়ে অভিযোগ করেন তিনি। দিনভর এসব চলার পর শনিবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিয়ে দলের তরফে মদন মিত্রর সঙ্গে কথা বলে শৃঙ্খলা বজায় রাখার বার্তা দেওয়া হয়।

Advertisement

[আরও পড়ুন: কর্ণাটকের পর টার্গেট মধ্যপ্রদেশ! প্রিয়াঙ্কাকে সামনে রেখে প্রচার শুরু কংগ্রেসের]

এরপর রবিবারই অন্য মুডে দেখা গেল কামারহাটির তৃণমূল বিধায়ককে। এসএসকেএমের তীব্র সমালোচনায় ইতি টেনে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের ভূয়সী প্রশংসা করলেন তিনি। আর গোটা কৃতিত্বই দিলেন মুখ্যমন্ত্রীকে।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ