৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাসপাতাল থেকে গায়েব দুর্ঘটনাগ্রস্ত যুবকের কাটা আঙুল৷ রোগীর পরিজনদের দাবি, ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল দেখতে ব্যস্ত ছিলেন সিএমআরআই হাসপাতালের কর্মী এবং চিকিৎসকরা৷ তাই গাফিলতিতেই আঙুল হারিয়ে গিয়েছে জখম ব্যক্তির৷ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আলিপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷

[ আরও পড়ুন: ‘আলটপকা মন্তব্য বন্ধ করে ভুল স্বীকার করুন’, বিধায়কদের বৈঠকে কড়া বার্তা মমতার]

ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল নিয়েই বুধবার মজেছিলেন ক্রিকেটপ্রেমীরা৷ সন্ধেয় যখন ব্যাটে-বলে ঝড় উঠেছে, ঠিক তখনই দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন হাওড়ার বাসিন্দা নীলোৎপল বিশ্বাস৷ শিবপুরের বিই কলেজের সামনে দুর্ঘটনায় হাতের একটি আঙুল বাদ যায় তাঁর৷ তড়িঘড়ি কাটা আঙুলটি সঙ্গে নিয়েই রোগীকে একবালপুরের সিএমআরআই হাসপাতালে ছুটে আসেন রোগীর পরিজনেরা৷ জরুরি বিভাগে চিকিৎসা হয় জখম ব্যক্তির৷ কাটা আঙুলটি আপাতত হাসপাতালেই সংরক্ষিত করে রাখা থাকবে বলেই জানান চিকিৎসকরা৷ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নটা নাগাদ অস্ত্রোপচার করে ওই আঙুলটি নীলোৎপলের হাতে জোড়া লাগানোরও আশ্বাস দেন তাঁরা৷

[ আরও পড়ুন: ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বনগাঁ পুরসভায় অনাস্থা প্রক্রিয়া শুরুর নির্দেশ হাই কোর্টের]

চিকিৎসকদের কথামতো বৃহস্পতিবার সকালে নির্ধারিত সময়ে দুর্ঘটনাগ্রস্ত যুবক নীলোৎপলের স্ত্রী হাসপাতালে পৌঁছন৷ স্বামীর অস্ত্রোপচারের প্রস্তুতি চলছে বলেই দেখেন তিনি৷ কিন্তু সাড়ে নটা বেজে গেলেও অস্ত্রোপচার শুরু না হওয়ায় হাসপাতাল কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন নীলোৎপলের স্ত্রী৷ তাঁর দাবি, দেরির কারণ সম্পর্কে সদুত্তর পাননি৷ আচমকা ওই মহিলা কানাঘুষোয় শুনতে পান, তাঁর স্বামীর আঙুল খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না৷ বেশ কিছুক্ষণ পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আঙুল হারিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করে নেয়৷ জখম ব্যক্তির স্ত্রীর অভিযোগ, বুধবার সন্ধেয় স্বামীকে হাসপাতালে নিয়ে আসার সময় তিনি দেখেন বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল দেখতেই ব্যস্ত রয়েছেন চিকিৎসক-হাসপাতাল কর্মী প্রায় সকলেই৷ গাফিলতির জেরেই নীলোৎপল বিশ্বাসের আঙুল হারিয়ে গিয়েছে বলেই অভিযোগ তাঁর৷

[ আরও পড়ুন: অনাস্থা সামলাতে মুকুলেই আস্থা সব্যসাচীর, বাড়িতে বসে আলোচনায় দুই নেতা]

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় স্তম্ভিত রোগীর পরিজনেরা৷ বাধ্য হয়ে আলিপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁরা৷  সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে বলেই দাবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং