BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

৫০০ টাকা দিলেই মিলবে সরকারি হোম ডেলিভারি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 28, 2016 9:14 am|    Updated: August 28, 2016 9:14 am

An Images

সন্দীপ চক্রবর্তী: পাঁচশো টাকার সামগ্রী কিনলেই ‘সুফল বাংলা’য় হোম ডেলিভারি৷ সরাসরি বাড়িতে পৌঁছে যাবে ন্যায্যমূল্যের সবজি থেকে মাছ৷ মাংস থেকে পায়েস৷ এছাড়া চলতি বছরেই অনলাইনেও কেনাকাটার সুযোগ মিলতে পারে৷ অর্থাৎ পুরোপুরি পেশাদারি ঢংয়ে বিপণনে নামছে ‘সুফল বাংলা’৷ দু’মাসের মধ্যে রাজ্যের অন্তত ২৫টি স্থানে স্থায়ী স্টল দিয়ে পুরোপুরিভাবে ‘হোম ডেলিভারি’র উদ্যোগে নামছে সরকার৷

মূলত কলকাতার নানা প্রান্তে ও জেলা শহরে সাধারণ মানুষের স্বার্থে এমন উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্যের কৃষি বিপণন দফতর৷ এখনই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিকল্পনায় ‘সুফল বাংলা’ অভিজাত মধ্যবিত্ত বাঙালির কাছে বেশ জনপ্রিয়৷ সেই জনপ্রিয়তার ফলে স্টল খোলার আবেদনও আসছে প্রচুর৷ দফতরের মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত জানিয়েছেন, মানুষের চাহিদার কথা মাথায় রেখেই নির্দিষ্ট এলাকায় স্টল খোলা হচ্ছে৷ তাঁর বক্তব্য, “মুখ্যমন্ত্রীর অনুপ্রেরণাতেই ‘সুফল বাংলা’ এখন জনপ্রিয়৷ সাধ্যের মধ্যে খাদ্য তুলে দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য৷”

চলতি বছরেই এই প্রকল্প চালু হয়েছে৷ এখনই সবমিলিয়ে ২৮টি স্টল তৈরি হয়েছে৷ এর মধ্যে ভ্রাম্যমাণ স্টলের সংখ্যা ১৮টি৷ সেই স্টলগুলি বিভিন্ন এলাকায় থাকে৷ তবে স্থায়ী স্টল তৈরির ব্যাপারে প্রচুর অনুরোধ-আবেদন জমা পড়ছে৷ তাই এরকম স্টলের সংখ্যা বাড়ানোর বিষয়ে উদ্যোগ নিচ্ছে কৃষি বিপণন দফতর৷ আগামী বছরের মার্চের মধ্যে রাজ্যে একশোটি সুফল বাংলার স্টল করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে৷

দফতর সূত্রে খবর, কলকাতার অভিজাত এলাকায় স্টলের সংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তাব নেওয়া হয়েছে৷ সল্টলেক, আলিপুর, নিউ আলিপুরে যেমন স্টল রয়েছে, তেমনই বোলপুর, সিঙ্গুরেও স্টল তৈরি হয়েছে৷ দফতরের কর্তারাও চাইছেন, সব জেলাসদর ও জেলার গুরুত্বপূর্ণ শহরে এই স্টল তৈরি করতে৷ এতে যেমন সাধারণ মানুষের সুবিধা হয়, তেমনই প্রচুর কর্মসংস্থানও হচ্ছে৷ স্টলগুলির সংখ্যা ২৫ হলেই অনলাইনে কেনাকাটা চালু করবে দফতর৷ ‘হোম ডেলিভারি’ নিউ আলিপুরে পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে চালু হয়৷ উল্লেখ্য, আপাতত ‘সুফল বাংলা’য় সুগন্ধী চাল, মাছ, মাদার ডেয়ারির দই, পায়েস, ১৪ টাকা দরে আলু, ব্রয়লার ও চিকেন-সহ সবজিও মেলে৷ বেগুন, বরবটি, ঢেঁড়স, গাজরের দামও কম৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement