×

২ চৈত্র  ১৪২৫  সোমবার ১৮ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নিউজলেটার

২ চৈত্র  ১৪২৫  সোমবার ১৮ মার্চ ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবার ঘোষণা হল লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলে কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা৷ নিয়ম মেনে কালীঘাটের বাড়ি থেকে প্রার্থীতালিকা প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বরাবরের মতো এবারও প্রার্থী তালিকায় চমক রাখলেন তিনি৷ নিয়ে এলেন একাধিক নতুন মুখকে৷ বাদ দিলেন গতবারের অনেক জয়ী প্রার্থীকে৷ এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এবারের লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা থেকে যাঁদের বাদ রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

[তৃণমূলের প্রার্থী ঘোষণার দিনেই বিজেপিতে নাম লেখালেন অনুপম]

১) সুব্রত বক্সি: তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি সুব্রত বক্সি৷ গতবারের লোকসভা নির্বাচনে দক্ষিণ কলকাতা থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন তিনি৷ পরাজিত করেছিলেন সিপিএমের নন্দিনী মুখোপাধ্যায়কে৷ তবে এবার আর তৃণমূল প্রার্থী হচ্ছেন না সুব্রত বক্সি৷ মঙ্গলবার প্রার্থী তালিকা ঘোষণার সময় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দলের হয়ে সাংগঠনিক কাজের করতে করতে চান সুব্রত বক্সি৷ সেকারণে উনি এবার প্রার্থী হতে চাননি৷ উনি নিজেই আমাকে একথা জানিয়েছেন৷ এটা বোধ হয় তৃণমূলেই সম্ভব৷’

২) অধ্যাপক সুগত বসু: এবার প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সুগত বসু৷ গতবার যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে লড়াই করেছিলেন তিনি৷ পরাজিত করেছিলেন সিপিএমের শীর্ষ নেতা সুজন চক্রবর্তীকে৷ তবে এবার ব্যক্তিগত কাজ থাকায় এবং অধ্যাপনার কাজে ব্যস্ত থাকায় তিনি নিজে থেকেই প্রার্থী হতে চাননি বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি আরও বলেন, প্রার্থী না হলেও তিনি দলের সঙ্গেই থাকবেন৷

৩) অভিনেত্রী সন্ধ্যা রায়: তৃণমূলের টিকিটে গতবার মেদিনীপুর কেন্দ্র থেকে লড়েছিলেন অভিনেত্রী সন্ধ্যা রায়৷ পরাজিত করেছিলেন প্রবোধ পাণ্ডার মতো শীর্ষ বাম নেতাকে৷ তবে এবার তাঁকে প্রার্থী করেননি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি জানান, সন্ধ্যা রায়কে দল অন্যকাজে ব্যবহার করবে৷

৪) উমা সোরেন: গতবার ঝাড়গ্রাম থেকে তৃণমূলের টিকিটে লড়েন তৃণমূলের আদিবাসী নেত্রী ডাঃ উমা সোরেন৷ সূত্রের খবর, তাঁর কাজে সন্তুষ্ট ছিলেন না খোদ দলনেত্রী৷ সম্ভবত সেকারণেই এবার তাঁকে প্রার্থী করেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মঙ্গলবার এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, দলের সংগঠনের কাজে লাগানো হবে উমা সোরেনকে৷

[ভোটের সঙ্গে জুড়ে গেল সত্যজিৎ রায়ের নাম, জানেন কীভাবে? ]

৫) ইদ্রিস আলি: গত লোকসভা নির্বাচনে সংখ্যালঘু অধ্যুষিত বসিরহাট কেন্দ্র থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে নির্বাচনে লড়েন ইদ্রিশ আলি৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দীর্ঘদিনের সহযোদ্ধা তিনি৷ তবে এবারের নির্বাচনে তাঁকে প্রার্থী করেননি মুখ্যমন্ত্রী৷

৬) পার্থপ্রতিম রায়: কোচবিহারের সাংসদ ছিলেন পার্থপ্রতিম রায়৷ রাজনৈতিক মহলে জোর জল্পনা, কয়েকদিনের মধ্যে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন তিনি৷ মুকুল রায় ঘনিষ্ঠ এই নেতাকে এবারের প্রার্থীতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

৭) সৌমিত্র খাঁ: বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদ ছিলেন তিনি৷ মুকুল রায়ের হাত ধরে চলতি বছরই বিজেপিতে যোগদান করেন৷ ফলে দল থেকে বহিষ্কার করা হয় তাঁকে৷ স্বভাবতই এবারের প্রার্থী তালিকায় তাঁর নাম নেই৷

৮) অনুপম হাজরা: সৌমিত্র খাঁয়ের মতোই দল বিরোধী কাজের অভিযোগে বোলপুরের সাংসদ অনুমপ হাজরাকেও বহিষ্কার করে তৃণমূল৷ মঙ্গলবারই তিনি যোগ দেন বিজেপিতে৷ তাঁর নামও এবারের প্রার্থীতালিকায় নেই৷

ছবি: অমিত ঘোষ

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং