BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

খাস কলকাতায় ভুয়ো কল সেন্টার খুলে কোটি কোটি টাকা প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৯

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 12, 2020 1:24 pm|    Updated: August 12, 2020 1:24 pm

An Images

অর্ণব আইচ: ভুয়ো কল সেন্টার খুলে খাস কলকাতায় প্রতারণার অভিযোগ। রাতভর তল্লাশিতেই মিলল সাফল্য। কলকাতা পুলিশের জালে ধরা পড়ল ৯ জন। তাদের কাছ থেকে কয়েক লক্ষ টাকা, বেশ কয়েকটি ল্যাপটপ এবং একটি মার্সিডিজ গাড়িও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবারই গ্রেপ্তার হয় কলকাতার কুখ্যাত তোলাবাজ শেখ বিনোদ। তাতে জেরা করেই কল সেন্টার খুলে প্রতারণার খবর পায় পুলিশ। তারা জানতে পারে, প্রগতি ময়দান থানা এলাকার একটি আবাসন ও প্রতাপাদিত্য রোডের একটি বাড়িতে ভুয়ো কল সেন্টার খুলে প্রতারণার কারবার চলছে। সেই অনুযায়ী দু’টি জায়গাতেই হানা দেয় পুলিশ। প্রগতি ময়দান থানা এলাকায় হানা দিয়ে এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃত কান্তপ্রসাদ চৌরাশিয়া ও ডেভিড জয়সওয়াল বাগুইআটির বাসিন্দা। রাজেন্দ্র দ্বিবেদী কসবার এবং সুরজিৎ বৈষ্ণব পুরুলিয়ার ঝালদার বাসিন্দা। তাঁদের কাছ থেকে চারটি কম্পিউটার, ৩টি হার্ড ডিস্ক এবং চারটি মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়।

[আরও পড়ুন: খুন নাকি আত্মহত্যা? বাড়ির সামনে থেকে করোনা রোগীর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে ধন্দে পুলিশ]

প্রতাপাদিত্য রোডে হানা দিয়ে চারু মার্কেটের বাসিন্দা সন্দীর কুমার সাউ, ব্রড স্ট্রিটের বাসিন্দা ফারাদ রাব্বানি, গার্ডেনরিচের বাসিন্দা মহম্মদ সোয়েব ইউসুফ এবং ওয়াটগঞ্জের মহম্মদ ইজাজ খান এবং শাহানু সিং নামে মোট পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃতদের কাছ থেকে ৪ লক্ষ ৬ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এছাড়াও ছ’টি ল্যাপটপ, একটি কম্পিউটার এবং একটি মার্সিডিজ গাড়ি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ধৃতদের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। অভিযুক্তদের সঙ্গে বড়সড় চক্রের যোগসাজশ রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ওই মার্সিডিজটি তোলাবাজ শেখ বিনোদের কিনা, তাও তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: উপসর্গহীন করোনা রোগী দ্রুত শনাক্তকরণ, তিনটি পৃথক রুটে পরীক্ষা কলকাতা পুরসভার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement