BREAKING NEWS

৩০ আশ্বিন  ১৪২৮  রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রক্তের অণুচক্রিকা ‘ব্ল্যাক’ করে ৬ গুণ দামে বিক্রি, গ্রেফতার এক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 3, 2016 11:46 am|    Updated: September 3, 2016 11:46 am

Police busts gang selling blood platelets

স্টাফ রিপোর্টার: এক ইউনিট রক্তের অণুচক্রিকা তিন হাজার টাকায় বিক্রির ছক৷ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হল চক্রের মাথা৷ শুক্রবার বিকেলে মদন মণ্ডল (৫৫) নামে ওই প্রৌঢ়কে নিউ মার্কেটের জানবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷ তার কাছ থেকে উদ্ধার হয় ৬ প্যাকেট অণুচক্রিকা৷

যেখানে ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার জন্য অণুচক্রিকার জন্য হাহাকার পড়ে যাচ্ছে, সেখানে সুযোগ বুঝে কীভাবে এই চক্র ৬ গুণ দামে অণুচক্রিকা ব্ল্যাক করছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে৷ পুলিশের মতে, অভিযুক্ত মদন মণ্ডল ছাড়াও আরও কয়েকজন এই চক্রের সঙ্গে যুক্ত৷ পুলিশ জানিয়েছে, এনআরএস হাসপাতালে ভর্তি এক রোগীর চিকিৎসার জন্য রক্তের অণুচক্রিকা প্রয়োজন হয়৷ তাঁর পরিবারের লোকেরা হাসপাতাল চত্বরে হন্যে হয়ে খুঁজতে থাকেন রক্ত৷ হাসপাতাল চত্বরেই তাঁদের সঙ্গে পরিচয় হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগর এলাকার বাসিন্দা মদন মণ্ডলের৷ মদন তাঁদের বলে যে, সাধারণভাবে এখন অণুচক্রিকা পাওয়া মুশকিল৷ তবে ইউনিট প্রতি তিন হাজার টাকা খরচ করলে তা পাওয়া যেতে পারে৷ সরকারি ব্লাড ব্যাঙ্কে কার্ডের বিনিময়ে এই অণুচক্রিকা পাওয়া যায় বিনামূল্যে৷ বেসরকারি হাসপাতালে মেলে পাঁচশো টাকায়৷ কিন্তু এই ক্ষেত্রে রোগীর পরিজনদের কিছু করারও ছিল না৷ তাঁরা রাজি হয়ে যান৷ অভিযুক্ত প্রৌঢ় তাঁদের নিউ মার্কেটের জানবাজারে দেখা করতে বলে৷ এর মধ্যেই একটি বিশেষ সূত্রে একটি এনজিও-র কর্তা বিষয়টি জানতে পারেন৷ তিনিই ওই রোগীর পরিজন সেজে জানবাজারে যান৷ ৬টি ইউনিট রক্তের অণুচক্রিকা নিয়ে হাজির ছিল মদন৷ সে ইউনিট পিছু তিন হাজার টাকা নিতে গেলেই ধরা পড়ে যায় ওই এনজিও কর্তার হাতে৷ তাঁর হাত থেকে মদন পালানোর চেষ্টা করে৷

জানবাজারে বিষয়টি নিয়ে গোলমালের সৃষ্টি হয়৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে নিউ মার্কেট থানার পুলিশ৷ পুলিশ তাকে ধরে এন্টালি থানার হাতে তুলে দেয়৷ তাকে গ্রেফতার করা হয়৷ এর আগেও ব্ল্যাকে রক্ত বিক্রি করতে গিয়ে সে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছিল৷ জানা গিয়েছে, মধ্য কলকাতার বেশ কয়েকটি বেসরকারি ব্লাড ব্যাঙ্ক থেকে সে রক্ত ও অণুচক্রিকা জোগাড় করে৷ নিরুপায় রোগীর পরিজনদের কাছে কয়েক গুণ টাকায় বিক্রি করে সে৷ এই চক্রে তার সঙ্গে যারা যুক্ত রয়েছে, তাদের সন্ধান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement