BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আবহে রাতারাতি গুরুত্বপূর্ণ বদল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে, অপসারিত অধ্যক্ষ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 28, 2020 8:57 am|    Updated: July 28, 2020 9:02 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আবহে রাতারাতিই বড়সড় সিদ্ধান্ত। আচমকা অপসারিত শহরের প্রথম কোভিড হাসপাতাল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের (Calcutta Medical College Hospital) অধ্যক্ষ ডাক্তার মঞ্জুশ্রী রায়। তাঁর বদলে দায়িত্ব নেবেন এসএসকেএম-এর প্রাক্তন অধ্যক্ষ ডাক্তার মঞ্জু বন্দ্যোপাধ্যায়। নিয়মকানুন মেনে তিনি দায়িত্বভার গ্রহণের আগে আপাতত মেডিক্যালের সুপার ইন্দ্রনীল বিশ্বাস সামলাবেন কাজকর্ম। সোমবার রাতে স্বাস্থ্য ভবনের তরফে এই নির্দেশই পৌঁছেছে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে। করোনা পরিস্থিতিতে কেন রাতারাতি এই সিদ্ধান্ত, তা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে।

সূত্রের খবর, সোমবার রাতে স্বাস্থ্য ভবন থেকে নতুন নির্দেশ পৌঁছয় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। শহরের প্রথম কোভিড (COVID) হাসপাতাল হিসেবে পূর্ণাঙ্গ পরিকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছিল এখানেই। তখন থেকেই অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব সামলেছেন মঞ্জুশ্রী রায়। রাতারাতি তাঁকে বদলি করে দেওয়া হয়েছে আরজি কর হাসপাতালের অ্যানাস্থেশিয়া বিভাগে।

[আরও পড়ুন: আসতে পারছেন না বাবা-মা, নিজের গাড়িতে রোগীকে বাড়ি পৌঁছে দিলেন SSKM-এর ২ চিকিৎসক]

কিন্তু কেন এমন সিদ্ধান্ত? এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহলের একাংশের মত, কোভিড হাসপাতাল হিসেবে কাজ শুরুর পর কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসা সংক্রান্ত একাধিক অভিযোগ জমা পড়ছিল স্বাস্থ্য ভবনে। কখনও রোগী ফেরানো, কখনও দীর্ঘ সময় ধরে চিকিৎসা না করে রোগীকে ফেলে রাখা – এমন গুরুতর অভিযোগও উঠছিল। আশানুরূপ পরিষেবা পাওয়া যাচ্ছে না এই কোভিড হাসপাতালে। এমন মনে হওয়ায় অধ্যক্ষ বদলের সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর।

[আরও পড়ুন: মিটার রিডিং না নিয়ে কেন তৈরি হল গড় বিল? CESC’র জবাব তলব কলকাতা হাই কোর্টের]

আরও একটি জল্পনাও তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি কলকাতা মেডিক্যাল করোনা ছাড়াও অন্যান্য রোগের চিকিৎসা শুরুর দাবি জানিয়ে আন্দোলনে নেমেছিলেন জুনিয়র ডাক্তাররা। প্রায় তিন, চারদিন ধরে সেই আন্দোলন চলে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলে সমস্যা সমাধান না করতে পারায় ছুটে আসতে হয়েছিল স্বাস্থ্য ভবনের দুই অধিকর্তাকে। তাঁদের ঘেরাও করে, আটকে বিক্ষোভ দেখান জুনিয়ার ডাক্তাররা। এই ঘটনায় অধ্যক্ষ মঞ্জুশ্রী রায়ের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল সেসময়ই। এমনই সব ধারাবাহিক ঘটনায় মেডিক্যালের অধ্যক্ষের (Principal) ভূমিকা নিয়ে সংশয় তৈরি হচ্ছিল। যার ফলাফল এই অপসারণ এবং তুলনায় কম দায়িত্বপূর্ণ পদে স্থানান্তর।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement