BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শনিবার ১ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

স্টেশন মাস্টারের ভুলেই বিপত্তি, দাশনগরে ট্রেন বিভ্রাটে তদন্তের আশ্বাস রেলের

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: January 24, 2019 12:54 pm|    Updated: January 24, 2019 12:54 pm

Rail blockade in Dasnagar Station

সূব্রত বিশ্বাস: মাঝের লাইনে ঢুকে পড়েছে লোকাল ট্রেন। প্ল্যাটফর্ম না থাকায় নামতে পারেননি যাত্রীরা। বৃহস্পতিবার সকালে প্রায় ঘন্টা তিনেক ধরে অবরোধ চলল হাওড়ার দাশনগর স্টেশনে। চরম দুর্ভোগে পড়তে হল যাত্রীদেরই। ঘটনায় দাশনগর স্টেশনের স্টেশন মাস্টারকেই দায়ী করেছে দক্ষিণ-পূর্ব রেল। তদন্তের আশ্বাসও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু, হাওড়া-পাঁশকুড়া লোকালের চালক ও গার্ডও কি দায় এড়াতে পারেন? প্রশ্ন রেল আধিকারিকদের একাংশেরই।

[ সকালের ব্যস্ত সময়ে রেল অবরোধ দাশনগর স্টেশনে, দুর্ভোগে যাত্রীরা]

ঘটনার সূত্রপাত বৃহস্পতিবার সকাল সাতটা নাগাদ। পাঁশকুড়া থেকে হাওড়া আসছিল একটি লোকাল ট্রেন। সকালে অফিস টাইমে ট্রেনে ভিড়ও ছিল যথেষ্ট। কিন্তু, ট্রেনটি দাশনগর স্টেশনে কাছে পৌঁছতেই ঘটে বিপত্তি। দক্ষিণ-পূর্ব রেলের আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ জানিয়েছেন, স্টেশন ঢোকার মুখে লোকাল ট্রেনটিকে মাঝের লাইন বা থার্ড লাইনে ঢুকিয়ে দেন দাশনগর স্টেশনের স্টেশন মাস্টার। ফলে ট্রেন থামলেও স্টেশনে নামতে পারেননি যাত্রীরা। কারণ মাঝের লাইনের দু’পাশে কোনও প্ল্যাটফর্ম নেই। এরপরই পাঁশকু়ড়া স্টেশনে অবরোধ শুরু করে দেন ক্ষুদ্ধ যাত্রীরা। ঘণ্টা তিনেকের অবরোধে হাওড়া-খড়গপুর শাখায় ট্রেন চলাচল কার্যত বন্ধ হয়ে যায়। বিভিন্ন স্টেশনে একাধিক লোকাল ট্রেনই শুধু নয়, দাশনগর স্টেশন আটকে পড়ে হাওড়া-মুম্বই দুরন্ত এক্সপ্রেসও। অভিযুক্ত স্টেশন মাস্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ। অবরোধও উঠে গিয়েছে।

কিন্তু, দাশনগর স্টেশনে এই রেল বিভ্রাটের দায় কি শুধু স্টেশন মাস্টারেরই? প্রশ্ন তুলেছেন রেল আধিকারিকদের একাংশ। তাঁদের বক্তব্য, প্রতিটি লোকাল ট্রেনের চালক ও গার্ড রীতিমতো প্রশিক্ষিত। সংশ্লিষ্ট রুটের সমস্ত স্টেশনের হালহকিকত জানেন তাঁরাও। রেল আধিকারিকদের প্রশ্ন, হাওড়া-পাঁশকুড়া লোকাল যে দাশনগর স্টেশনে থামবে, তা জানতেন ট্রেনের চালক ও গার্ড। সেক্ষেত্রে চালক ও গার্ডও তো স্টেশন মাস্টারকে জানাতে পারতেন যে, মাঝের লাইন বা থার্ড লাইনে দু’দিকে কোনও প্ল্যাটফর্ম নেই। ফলে ওই লাইন ট্রেন থামলে, দাশনগর স্টেশনে যাত্রীরা উঠতে বা নামতে পারবেন না। এদিকে অভিযুক্ত স্টেশন মাস্টারের সাফাই, তিনি ভেবেছিলেন, ওই লোকাল ট্রেনটি গ্যালপিং। দাশনগরে স্টেশনে দাঁড়াবে না। তাই ট্রেনটিকে মাঝের লাইন বা থার্ড লাইনে ঢুকিয়েছিলেন।

দেখুন ভিডিও:

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে