BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

কার্নিভালের জন্য প্রস্তুত শহর, দুপুর থেকে বন্ধ রেড রোড-সহ একাধিক রাস্তা

Published by: Sulaya Singha |    Posted: October 23, 2018 10:50 am|    Updated: October 23, 2018 10:55 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুজো শেষের পরও আবারও ঠাকুর দেখা। আজ রেড রোডে শহরের সেরা প্রতিমাগুলি দেখা যাবে একসঙ্গে।

আজ, মঙ্গলবার বেলা সাড়ে চারটে নাগাদ রেড রোডে শুরু কার্নিভাল। এটি তৃতীয় দুর্গাপুজো কার্নিভাল। কলকাতা ও লাগোয়া শহরতলির সেরা ৭৪টি পুজো কমিটি অংশ নিচ্ছে শোভাযাত্রায়। থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও দেশ-বিদেশের প্রতিনিধিরা। রেকর্ড সংখ্যক বিদেশি প্রতিনিধির অংশগ্রহণে জমকালো, আড়ম্বরপূর্ণ হবে গোটা অনুষ্ঠান। রেড রোডজুড়ে হাজার তিরিশেক মানুষ প্রত্যক্ষ করবেন সমারোহ। এছাড়াও বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচার, ফেসবুক লাইভ ও ইউটিউবের দৌলতে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ বাংলার উৎসবের এই মেগা ইভেন্টের সাক্ষী থাকবেন। আর তার জন্য মোতায়েন কড়া নিরাপত্তা। কার্নিভালের জন্য বেলা ১২টা থেকেই বন্ধ হচ্ছে রেড রোড সংলগ্ন একাধিক রাস্তা।

[মুখ্যমন্ত্রীর নয়া উদ্যোগ, রাজ্যের স্কুলপাঠ্যে অন্তর্ভুক্ত হল অঙ্গ প্রতিস্থাপন]

সোমবার সন্ধ্যার পরই রেড রোডকে নিরাপত্তার বলয়ে মুড়ে ফেলা হয়েছে। এদিন ১২টা থেকে  বন্ধ রেড রোড লাগোয়া বেশ কিছু পথ। বন্ধ থাকবে কুইনস ওয়ে, হসপিটাল রোড, লাভার্স লেন, খিদিরপুর রোড, ক্যাসুরিনা এভিনিউ, আউটট্রাম রোড, মেয়ো রোড, ডারফিন রোড এবং নিউ রোড। সেই সময় অন্য রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচল করবে। ঘুরিয়ে দেওয়া হবে বাসের রুটও। খোলা থাকবে এসএন ব্যানার্জি রোড, লেনিন সরণি। বেলা একটা থেকে দর্শকরা ঢুকতে পারবেন। সাধারণ দর্শকদের জন্য ছ’টি গেট থাকছে। দর্শকরা বিদায় নেওয়ার পর রাস্তা খুলে দেওয়া হবে। পদস্থ কর্তা-সহ প্রায় তিন হাজার পুলিশ থাকবে রাস্তায়। ক্লোজ সার্কিট টিভিতে করা হবে নজরদারি। ছ’টি ওয়াচ টাওয়ার থাকবে রেড রোড চত্বরে। নজর রাখতে থাকছে ড্রোনও। লাগানো হয়েছে এলইডি স্ক্রিন।

সুরুচি, চেতলা অগ্রণী, সমাজসেবী সংঘ, নাকতলা, ত্রিধারা, একডালিয়া, কলেজ স্কোয়ারের মতো বরানগর নেতাজি কলোনি লো-ল্যান্ড, গড়িয়া মিতালি সংঘ, বারুইপুরের পদ্মপুকুর ইউথ ক্লাবের মতো প্রথম অংশ নেওয়া কমিটিও গোপন রাখতে চাইছে নিজেদের পরিকল্পনা। প্রতিটি কমিটিই চাইছে ট্যাবলোর চমকে ও অভিনবত্বে অন্যদেরকে ছাপিয়ে যেতে। পাশাপাশি ইসকনের বিদেশি প্রতিনিধি ও সন্ন্যাসীরাও মুখ্যমন্ত্রীর লেখা গানে পা মেলাবেন ও নৃত্য পরিবেশন করবেন শোভাযাত্রায়। এই প্রথম রূপান্তরকামীরা নৃত্য পরিবেশন করতে চলেছেন কার্নিভালে। ‘ভয়েস অফ ওয়ার্ল্ড’-এর দৃষ্টিহীনদের একটি ব্যান্ডও থাকছে সমাজসেবী সংঘের শোভাযাত্রায়। এবার লন্ডন থেকে আসছে বিশেষ দল। বিদেশি কূটনীতিকদের জন্য দেড় হাজার আসন রাখা হয়েছে।

[মেগা কার্নিভালের প্রস্তুতির মাঝেই রেড রোডে আগুন, পুড়ে ছাই প্যান্ডেলের একাংশ]

সোমবার দুপুরেই রেড রোডের কাছাকাছি বেশ কিছু প্রতিমা পৌঁছে গিয়েছে। নির্দিষ্ট সংখ্যায় লরি রাখতে পারবেন পুজো কমিটির কর্তারা। ফোর্ট উইলিয়ামের দিক থেকে আসবে শোভাযাত্রা। জে কে আইল্যান্ডের দিক থেকে প্রতিমাগুলি এসে নেতাজি মূর্তির সামনে দিয়ে ঘুরে বাবুঘাটের দিকে চলে যাবে। তারপর হবে নিরঞ্জন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ দেশ বিদেশের প্রতিনিধিরা যেখানে বসবেন, সেটিকে সেখানে রাজবাড়ির ঠাকুরদালানের আদলে সাজানো হয়েছে। মূল মঞ্চ ৮০ ফুট বাই ২৪ ফুট। দর্শকদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা। শিল্পপতিদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সাড়ে আটশো মিটার রেড রোডের দু’পাশে প্রায় ১৫ হাজার মানুষ বসে দেখতে পারবেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement