BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

১০০ টাকা আছে? খুচরোর খোঁজে হন্যে শহরবাসী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 9, 2016 8:12 am|    Updated: November 9, 2016 8:12 am

Rs. 100 has become the first priority of common man

স্টাফ রিপোর্টার: এক রাতেই কালো টাকা গোপনে অন্যত্র সরানোর হিড়িক পড়ে গেল শহরে৷ তার মাঝেই ১০০ টাকার নোট নিয়ে শুরু হয়ে গেল দালালি-কোথাও ৫০০ নোটের বিনিময়ে ৩০০ টাকা, কোথাও আবার ১০০০ টাকার নোটের বিনিময়ে ৮০০ টাকা৷ অন্যদিকে আবার মাথায় হাত পড়ল ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের৷ সেইসঙ্গে কলকাতা সহ সারা রাজ্যে আইনশৃঙ্খলাজনিত কারণে চিন্তার ছাপ স্পষ্ট হয়ে উঠল পুলিশকর্তাদের কপালে৷

কালো টাকা রুখতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ৫০০-১০০০ টাকার নোট বাতিলের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘোষণার পরই কলকাতা সহ সারা রাজ্যে প্রতিটি মানুষের মধ্যে শুরু হয়ে গেল হুড়োহুড়ি৷ কেউবা ১০০ টাকার নোট তুলতে লাইন দিলেন এটিএমে৷ কেউ আবার জমিয়ে রাখা কালো টাকা সরাতে মরিয়া হয়ে উঠলেন৷

কলকাতার মূল ব্যবসায়িক কেন্দ্র বড়বাজারের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ল আতঙ্ক৷ বড় ব্যবসায়ী, বিশেষ করে যাদের জমানো রয়েছে কাঁড়ি কাঁড়ি কালো টাকা, আতঙ্কিত হয়ে পড়ল তারা৷ রাত বারোটার পর ৫০০-১০০০ টাকার নোট বাতিল বলে ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷ তাই বারোটার আগেই জমানো কালো টাকা গোপনে অন্যত্র সরিয়ে ফেলার জন্য তৎপর হয়ে উঠল বড় ব্যবসায়ী এবং শিল্পপতিরা৷

সমস্যায় পড়লেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীরা৷ বড়বাজার ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ী সমিতির কর্তারা জানিয়েছেন, কোটি কোটি কালো টাকা যাদের হাতে রয়েছে তারা সকলেই বড়ো ব্যবসায়ী বা শিল্পপতি৷ ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের হাতে কালো টাকা কোথায়? এই স্তরের ব্যবসায়ীরা মূলত কম মূলধনে ব্যবসা করেন৷ রাতারাতি কেন্দ্রের এই সিান্তে সমস্যায় পড়েছে তারাই৷ কারণ, কারোরই বাড়িতে বড়ো অঙ্কের জমানো টাকা নেই৷ বিশেষ করে মধ্যবিত্ত, ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের হাতে টাকার অঙ্ক কম৷ অন্যদিকে আবার রাতের মধ্যেই এটিএমে টাকা শেষ৷ তার উপর পরপর দু-দিন ব্যাঙ্ক বন্ধ৷ ব্যবসা তো দূরের কথা৷ বাড়িতে খুচরো টাকার অভাবে দৈনন্দিন দোকান-বাজার কীভাবে হবে, তাই নিয়েই চিন্তিত সকলে৷

চিন্তিত পুলিশও৷ দু-দিন এটিএম বন্ধ থাকলেও শুক্রবার ভোর থেকেই সারা রাজ্যের এটিএম কাউন্টারের সামনে ১০০ টাকা তোলার জন্য দীর্ঘ লাইন পড়বে৷ সেই লাইন সামাল দিতে ছুটতে হবে পুলিশকেই৷ এছাড়া ৫০০-১০০০ টাকা জমা দেওয়ার জন্য ব্যাঙ্কের সামনেও মাত্রাতিরিক্ত লাইন হবে৷ এরফলে আইনশৃঙ্খলাজনিত চরম সমস্যা হবে বলে মনে করছেন, পুলিশ কর্তারা৷ সেই কারণে সমস্ত থানার ওসিদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে