১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

OMG! জামা পালটাতে গিয়ে বাথরুম থেকে পালাল অপহৃত ছাত্রী, তারপর…

Published by: Bishakha Pal |    Posted: November 17, 2018 6:56 pm|    Updated: November 17, 2018 9:14 pm

Schoolgirl's daring escape

সুব্রত বিশ্বাস: স্রেফ বরাতজোরে অপহরণের হাত থেকে রক্ষা পেল এক ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়া স্টেশনে। তবে এর সূত্রপাত সাঁকরাইল গার্লস হাই স্কুলে।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার স্কুলে ঢোকার মুখেই দু’জন রিম্পা নামে এক ছাত্রীকে বলে, “তোমার মার দুর্ঘটনা হয়েছে। এক্ষুনি চল।” মায়ের চরম বিপত্তির কথা শুনে দুই যুবকের সঙ্গে পা বাড়ায় সাঁকরাইল গার্লস হাই স্কুলের মাধ্যমিকের ওই পরীক্ষার্থী। কয়েক পা এগোতেই সমূর্তি ধারণ করে তারা। একটা গাড়িতে জোর করে তুলে নেয় তাকে। তারপর হুঁশিয়ারি, যেমন বলব তেমন কাজ করবি। না হলে তোর বাবা-মা সবাইকে খুন করব। আতঙ্ক আর উদ্বেগে টু-শব্দ না করেই সিঁটিয়ে যায় সে। হুমকি পর হুমকি। সঙ্গে মিঠে কথায় ভোলানোর পালা। “আমাদের সঙ্গে চল, কোনও অসুবিধা হবে না।” হু হু করে তাকে নিয়ে গাড়ি ছুটে যাওয়ায় আর পাশ দিয়ে দুরন্ত গতির ছুটে যাওয়া গাড়িতে কোনওরকম বাঁচার আশা খুঁজে পাচ্ছিল না এই মাধ্যমিক পড়ুয়া। দুপুর ১টা নাগাদ তাকে নিয়ে হাওড়া আসে দু’জন। গাড়ি থেকে তাকে নামিয়ে হাওড়া স্টেশনে ঢুকে পড়ে ওই দু’জন। এর পর ব্যাগ থেকে সালোয়ার কামিজ বের করে রিম্পার হাতে দেয় তারা। বাথরুমে গিয়ে স্কুল ড্রেস ছেড়ে আসতে বলে। ড্রেস পরিবর্তনের সময় ১০ নম্বর প্ল্যাটফর্মের মহিলা বাথরুমের সামনে অপেক্ষায় থাকে ওই দু’জন। ড্রেস পরিবর্তন করে বেরিয়ে সে দেখতে পায়, ওই দু’জন কথায় ব্যস্ত। সেই সুযোগে দৌড় দেয় রিম্পা। ঊর্ধ্বশ্বাসে তাকে দৌড়তে দেখে আরপিএফ কর্মীরা ছুটে এসে বিষয়টি জানতে পারে। ততক্ষণে ওই দু’জন গা ঢাকা দেয়। স্টেশনে তল্লাশি চালিয়ে অপহরণকারী দু’জনকে ধরতে পারেনি আরপিএফ।

বন্ধ শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার ট্রেন চলাচল, হয়রানির শিকার যাত্রীরা ]

রিম্পার বাবা প্রবীর দাস জানান, আরপিএফদের করা ফোন থেকেই জানতে পারি মেয়ে অপহরণ হয়েছে। এদিন টেস্টের ভুগোল পরীক্ষা ছিল তার। সাঁকরাইল ডিস্কো মোড়ের কাছে রিম্পাদের বাড়ি। সাড়ে দশটা নাগাদ তাঁর স্ত্রী মেয়েকে টোটোতে তুলে দেন স্কুলে যাওয়ার জন্য। তার পরেই ফোনে দুঃসংবাদটা আসে। ঘটনা জানতে পেরে প্রবীরবাবু সাঁকরাইল থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করতে যান। এদিকে স্কুল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানতে পেরে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করে। স্কুলের কৃতী ছাত্রী হিসাবে রিম্পার পরিচয় রয়েছে। আজ মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষার তৃতীয় দিনে ভুগোল পরীক্ষা ছিল রিম্পার। কিন্তু হঠাৎই সে অনুপস্থিত থাকায় সন্দেহ হয় শিক্ষিকাদের। এই খবর জানতে পেরে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে তাদের মধ্যে। স্কুলের কাছেই সাঁকরাইল থানা, সেখানে কীভাবে এই অপহরণের ঘটনা ঘটল তা নিয়ে উদ্বিগ্ন সবাই। আরপিএফের থেকে বিস্তারিত রিপোর্ট নিয়ে অপহরণের মামলা দায়ের করার পরিকল্পনা নিয়েছে জেলা পুলিশ।

শহরে প্রথম সরকারি হাসপাতালে সফল হৎপিণ্ড প্রতিস্থাপন ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে