BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৭ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা-আমফান আবহে বড় সিদ্ধান্ত কলকাতা পুরসভার, অপসারিত সচিব খলিল আহমেদ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 22, 2020 10:21 pm|    Updated: May 22, 2020 10:22 pm

An Images

কৃষ্ণকুমার দাস: আমফান নিয়ে কলকাতা পুরসভার ভূমিকা নিয়ে বিতর্কের মাঝেই সচিব পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল খলিল আহমেদকে। তাঁর জায়গায় এলেন স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব বিনোদ কুমার। সূত্রের খবর, শনিবারই বিনোদ কুমার পুরসভায় এসে নিজের দায়িত্ব বুঝে নেবেন। তার সামনে আপাতত দুটি গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জ – আমফান পরবর্তী কলকাতাকে ছন্দে ফেরানো এবং করোনা সংক্রমণ রুখে প্রতিরোধের মতো হিমালয় সমান দায়িত্ব সামলানো।

অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় আমফান শহর কলকাতাকে কার্যত তছনছ করে দিয়ে গেছে। বড় বড় গাছ পড়ে অবরুদ্ধ শহরের বহু রাস্তা। পুরকর্মীদের শত চেষ্টা সত্ত্বেও তা সাফ করতে একসপ্তাহ মতো সময় চেয়ে নিয়েছেন কলকাতা পুরসভা মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। এই পরিস্থিতিতেই পুরসভার সচিব খলিল আহমেদকে তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল প্রশাসন। তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয়েছে পুর ও নগরোন্নয়ন বিভাগে, এই বিভাগের প্রধান সচিব পদে তিনি আপাতত কাজ করবেন। সল্টলেকে দপ্তরের মূল ভবনই এবার তাঁর কার্যালয়। এই দপ্তরের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গেই তাঁকে ফের কাজ করতে হবে। আগে কলকাতা পুরসভা মেয়র হিসেবেও ফিরহাদের সঙ্গে কাজ করেছিলেন খলিল আহমেদ।

[আরও পড়ুন: ‘বইপাড়াকেও দেখুন’, মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্যের আবেদন গিল্ডের]

গত ৬ মে পুর সচিব সুব্রত গুপ্তকে সরিয়ে সেই পদে আনা হয়েছিল খলিল আহমেদকে। এবার তাঁর বদলে পুর সচিব হচ্ছেন বিনোদ কুমার। যিনি স্বাস্থ্যদপ্তরের সচিব ছিলেন। এছাড়া দীর্ঘ সময়ে ক্রীড়া দপ্তরেও অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করেছেন। স্বাস্থ্য দপ্তরে কাজ করার সুবাদে করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় তাঁর কাজে বিশেষ সুবিধা হবে বলে মনে করছেন পুর দপ্তরের আধিকারিকরা। এই কাজের পাশাপাশি সর্বাগ্রে আমফান বিধ্বস্ত শহর কলকাতাকে ফের সাজিয়ে গুছিয়ে তোলার মতো চ্যালেঞ্জও তাঁকে নিতে হবে। পুরকর্মীদের দিয়ে গাছ সাফসুতরো করে রাস্তা পরিষ্কার করে দেওয়ার কাজ যত দ্রুত করতে পারবেন, ততই ভাল। নতুন পুরসচিব বিনোদ কুমারের কাছে সেই কাজই প্রত্যাশা করছেন নগরবাসী।

[আরও পড়ুন: ‘বড়দের কথার মধ্যে ছোটদের ঢুকতে নেই’, কেন্দ্রের সাহায্য নিয়ে দিলীপকে তোপ ফিরহাদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement