১১ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুমকি চিঠি কাণ্ডের কিনারা, কলকাতা পুলিশের হাতে ধৃত চিকিৎসক-সহ ৩

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 9, 2021 9:21 am|    Updated: November 9, 2021 11:35 am

Three including one doctor from KPC Medical College arretsed for allegedly threatning to Alapan Bandopadhyay | Sangbad Pratidin

অর্ণব আইচ: মুখ্যমন্ত্রী মুখ্য উপদেষ্টা আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Alapan Bandopadhyaya) হুমকি চিঠি দেওয়ার অভিযোগে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার ৩ জন। এক বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসর-সহ তিনজনকে জালে এনে তদন্তের কিনারা করে ফেলল কলকাতা পুলিশ (Kolkata Police)। এই ঘটনার মাস্টারমাইন্ড হিসেবে উঠে আসছে কেপিসি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. অরিন্দম সেনের নাম। তিনি ছাড়াও গ্রেপ্তার হয়েছে তাঁর গাড়িচালক রমেশ সাউ এবং টাইপিস্ট বিজয়কুমার কয়াল। পুলিশ সূত্রে খবর, এর আগেও একাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিতে হুমকি চিঠি পাঠানোর রেকর্ড রয়েছে অরিন্দমের। তবে ঠিক কী কারণে তিনি এই কাজ করেন, সে বিষয়ে এখনও ধন্দে তদন্তকারীরা। তিনজনকে জেরা করে সমস্ত বিষয়টি জানার চেষ্টা চলছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

মূল অভিযুক্ত ডাক্তার অরিন্দম সেন।

অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে একটি হুমকি-চিঠি পান রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালি চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায়। চিঠিতে লেখা ছিল, “আপনার স্বামীকে খুন করা হবে। কেউ তাঁকে বাঁচাতে পারবে না।” নিচে প্রেরক হিসেবে নাম ছিল রাজাবাজার সায়েন্স কলেজের দু’জনের। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, হুমকি-চিঠিটি পাঠানো হয় দক্ষিণ কলকাতার শরৎ বসু রোড ডাকঘর থেকে স্পিড পোস্টের মাধ্যমে। এমন হাইপ্রোফাইল ব্যক্তিকে খুনের হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানোর মতো গুরুতর ঘটনার তদন্তভার দেওয়া হয় কলকাতা পুলিশের পদস্থ আধিকারিকদের উপর।

[আরও পড়ুন: সরকারের নিয়ম না মেনেই অতিরিক্ত বিল, ৭ হাসপাতালকে জরিমানা স্বাস্থ্য কমিশনের]

সোমবার সেই তদন্তের কিনারা করেন পুলিশ আধিকারিকরা। রাসবিহারী অ্যাভিনিউ থেকে প্রথমে গ্রেপ্তার করা হয় পেশায় টাইপিস্ট (typist) বিজয়কুমার কয়ালকে। তাঁকে জেরা করতেই মূল চক্রী হিসেবে কেপিসি মেডিক্যাল কলেজের (KPC Medical College) চিকিৎসক অরিন্দম সেনের নাম সামনে আসে। তিনি রাজা রামমোহন রায় সরণির বাসিন্দা। তিনিই নিজের টাইপিস্টকে দিয়ে হুমকি চিঠিগুলি টাইপ করিয়েছিলেন। এরপর গাড়িচালকের মাধ্যমে সেসব পাঠান আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। 

[আরও পড়ুন: বইপ্রেমীদের জন্য সুখবর, আগামী বছর কলকাতা বইমেলার সূচি ঘোষণা রাজ্যের]

ওইদিন ডাক্তার অরিন্দম সেনকে গ্রেপ্তার করা হয় এবং তাঁর থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী তল্লাশি চালিয়ে গাড়িচালক রমেশ সাউকেও জালে এনেছেন তদন্তকারীরা। আজ তিনজনকেই আদালতে পেশ করা হবে। সূত্রের খবর, ডাক্তার সেন এর আগে মোট ৭ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে এভাবে হুমকি চিঠি পাঠিয়েছিলেন। তবে প্রতিবারই পুলিশের নজর থেকে বেঁচে গিয়েছেন। তবে আলাপন বন্দ্যোপাধ্য়ায়কে খুনের হুমকি দিয়ে আর শেষরক্ষা হল না। ধরা পড়তেই হল তাঁকে।  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে