৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মোদির জনসভা উপলক্ষে চক্রব্যূহ ব্রিগেডের মাঠ, শিলিগুড়িতে মিছিলে মমতা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 7, 2021 8:58 am|    Updated: March 7, 2021 10:48 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ব্যুরো: মহাযজ্ঞের প্রস্তুতি শেষ। আর কয়েকঘণ্টা পরেই মহারণের ডঙ্কা বাজাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)। ব্রিগেডের ময়দানে দাঁড়িয়ে। মোদিকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত গেরুয়া ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ড (Brigade Parade Ground)। গোটা কলকাতা ছেয়ে গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কাট আউটে। প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি ব্রিগেডের সভায় থাকবে একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী থেকে শুরু করে সেলিব্রিটি ও একাধিক ভিভিআইপি। বলিউডের একাধিক তারকার উপস্থিতি নিয়ে চলছে জল্পনাও। তাই আজ ব্রিগেড ঘিরে চক্রব্যূহ রচনা করেছে পুলিশ। তৈরি করা হয়েছে চার বলয়ের নিরাপত্তার ব্যবস্থা। ড্রোনের সাহায্যে আকাশপথে নজর রাখা হবে জনতার উপর। বিজেপি নেতৃত্ব দাবি করেছে, আজ মোদির ব্রিগেড বৃহত্তম জনসমাবেশের নজির সৃষ্টি করতে চলেছে। রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, ১০ লক্ষাধিক মানুষ আসবেন ব্রিগেডে।

রবিবার সকাল থেকেই ভিড় জমতে শুরু করেছে ব্রিগেডে। শনিবার সকাল থেকে উত্তরবঙ্গ থেকে কয়েক হাজার সমর্থক শহরে চলে এসেছেন। রাতে আরও মানুষ উপস্থিত হয়েছেন দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকেও। হাওড়া-শিয়ালদহ ও বিজেপির রাজ্য দপ্তর থেকে তিনটি কেন্দ্রীয় মিছিল পৌঁছনোর কথা। এছাড়া, দক্ষিণ কলকাতা থেকে আরেকটি বড় মিছিল আসবে। একাধিক মিছিল আসবে উত্তর কলকাতার সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ ধরে। রবীন্দ্রসদন থেকেও মিছিল এসে পৌঁছবে। এছাড়া, হাওড়া ব্রিজ ও দ্বিতীয় হুগলি সেতু হয়ে গেরুয়া কর্মী-সমর্থক বোঝাই হাজার হাজার গাড়ি আসবে। ফলে রবিবার ছুটির দিন হলেও দুপুরে যানজট হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে।

[আরও পড়ুন: প্রথম দু’দফার জন্য প্রার্থীদের নাম ঘোষণা কংগ্রেসের, দেখে নিন তালিকা]

নিরাপত্তার জন্য রবিবার সকাল থেকেই তিন হাজার পুলিশ নামছে কলকাতার রাস্তায়। তার মধ্যে দু’হাজার পুলিশ থাকছে ব্রিগেডের ময়দানে। বাকি এক হাজার পুলিশ রাস্তা ও আশপাশে থাকছে। যেহেতু প্রধানমন্ত্রী রেসকোর্স থেকে ব্রিগেডে গাড়িতে এসে পৌঁছবেন, তাই পুরো রাস্তায় থাকছে অতিরিক্ত পুলিশি ব্যবস্থা। লালবাজারের খবর অনুযায়ী, মঞ্চের সামনেই থাকছে কলকাতা পুলিশের বিশেষ বাহিনী। ময়দানে থাকছে আরও দু’টি বলয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এ ছাড়াও সাদা পোশাকের পুলিশ জনতার মধ্যে মিশে নজরদারি রাখবে। মঞ্চের আশপাশের এলাকা ছ’টি সেক্টরে ভাগ করা হয়েছে। প্রত্যেক সেক্টরের দায়িত্বে থাকছেন একজন করে ডেপুটি কমিশনার। এছাড়াও থাকছেন অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার ও ইন্সপেক্টর পদমর্যাদার পুলিশ আধিকারিকরা। ব্রিগেডের মাঠ ও রাস্তায় থাকছেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও যুগ্ম পুলিশ কমিশনার পদমর্যাদার পুলিশকর্তারা। বিশেষ পুলিশ কমিশনার দেবাশিস রায়ের নির্দেশমতো নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণে আনবেন তাঁরা।

ব্রিগেডে মোদি যে মঞ্চে বক্তব্য রাখবেন, তা ৭২ বাই ৪৮ ফুট। উচ্চতা ১০ ফুট। এই মূল মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে থাকবেন একাধিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় নেতা। রাজ্য বিজেপির কোর কমিটির শীর্ষ নেতৃত্ব। প্রধানমন্ত্রীর মঞ্চে যাঁরা থাকবেন তাঁদের প্রত্যেকেরই কোভিডের অ্যান্টিবডি টেস্ট করানো হয়েছে। মূল মঞ্চের দু’পাশের দু’টি মঞ্চ ৪৮ বাই ২৪ ফুটের। সেখানে রাজ্য নেতৃত্ব, জেলা সভাপতি ও সেলিব্রিটিরা থাকবেন। প্রথম দু’দফার যে প্রার্থী তালিকা শনিবার ঘোষণা করেছে বিজেপি, দলের সেই প্রার্থীরাও উপস্থিত থাকবেন। মাঠ জুড়ে থাকছে ১৫০০টি সিসিটিভি ক্যামেরা। পাঁচ হাজার স্বেচ্ছাসেবক। মাঠের মধ্যে প্রায় কুড়িটি জায়ান্ট স্ক্রিন থাকবে। এছাড়া, শহরের বিভিন্ন জায়গায় লাগানো হবে জায়ান্ট স্ক্রিন। মাঠ এবং কলকাতাজুড়ে দু’হাজার লাউডস্পিকার লাগানো হয়েছে। শনিবার রাতে কলকাতাজুড়ে দশটিরও বেশি ধর্মশালা ও গেস্ট হাউসে কর্মী, সমর্থকদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়। বিজেপির রাজ্য দপ্তরের সামনে বিশাল শামিয়ানা টাঙানো রয়েছে। সেখানে আজ ভাত-ডাল-সবজি খেয়ে ব্রিগেডে রওনা দেবে কর্মীরা। সেলিব্রিটি কারা কারা থাকবেন সেটা নিয়েও আগ্রহ রয়েছে কর্মী, সমর্থকদের মধ্যে।

[আরও পড়ুন: মোদির ব্রিগেডে থাকছেন মিঠুন, ‘মহাগুরু’র বিজেপি যোগ নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে]

কলকাতা পুলিশের তরফে নোটিস জারি করে বলা হয়েছে, রবিবার বিকেল চারটে থেকে রাত আটটা পর্যন্ত মালবাহী গাড়ি কলকাতায় চলবে না। হেস্টিংস ক্রসিং ও ক্যাথিড্রাল রোডের মধ্যে এজেসি বোস রোড, খিদিরপুর রোড, হসপিটাল রোড, কুইনসওয়ে, ক্যাথিড্রাল রোড, ক্যাসুরিনা অ্যাভিনিউ, লাভার্স লেন-সহ কয়েকটি রাস্তায় গাড়ি পার্ক করা যাবে না। প্রধানমন্ত্রীর ‘লাইন অফ রুট’ যাতে ফাঁকা থাকে, পুলিশ সেই ব্যবস্থা করছে। নিরাপত্তার খাতিরে ব্রিগেড সংলগ্ন কয়েকটি রাস্তা বন্ধও করে দেওয়া হতে পারে বলে পুলিশের সূত্রে জানানো হয়েছে। মূল মঞ্চের আশপাশে বেশ কয়েকটি মেটাল ডিটেক্টর ডোর বসানো হচ্ছে।

অন্যদিকে, ব্রিগেডে মোদির সভার দিনেই শিলিগুড়িতে পদযাত্রায় শামিল হবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পেট্রোপণ্যের দামবৃদ্ধির প্রতিবাদে দার্জিলিং মোড় থেকে হাসমিচক পর্যন্ত সিলিন্ডার-সহ মিছিল হবে তৃণমূলের। সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মিছিলে হাঁটবেন দলের তারকা-সাংসদ মিমি চক্রবর্তী, নুসরত জাহানরা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement