BREAKING NEWS

১০ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ২৪ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ভোট পরবর্তী হিংসায় ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফেরালেন ‘ত্রাতা’ কুণাল ঘোষ

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: May 4, 2021 4:41 pm|    Updated: May 4, 2021 5:54 pm

TMC leader Kunal Ghosh comes to the rescue of BJP worker hounded by anti socials | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোটের (West Bengal Assembly Elections) ফল প্রকাশের পরই রাজনৈতিক অশান্তির জেরে ঘরছাড়া হয়েছিলেন খাস কলকাতার মানিকতলার বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী। দেবদূতের মতো তাঁদের পাশে দাঁড়ালেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)। রাজনৈতিক মতাদর্শ দূরে সরিয়ে বিরোধীদলের কর্মীকে ঘরে ফেরালেন তিনি। ফিরিয়ে দিলেন দোকানও।

ঘটনার সূত্রপাত ২ মে। ভোটের ফলপ্রকাশের পরই রবিবার রাতে উত্তেজনা ছড়ায় মানিকতলা এলাকায়। আক্রান্ত হন বেশ কিছু বিজেপি কর্মী। ঘর ছাড়তে হয় অনেককে। তাঁদের মধ্যেই ছিলেন বিশ্বনাথ সিং। জানা গিয়েছে, ওই যুবক ঘরে ফেরার আরজি জানিয়ে যোগাযোগ করেছিলেন এক সমাজসেবীর সঙ্গে। তিনিই বিষয়টি জানান কুণাল ঘোষকে। খবর পাওয়ামাত্রই তিনি যোগাযোগ করেন সাধন পাণ্ডের (Sadhan Pande) সঙ্গে। তাঁর সহযোগিতায় মঙ্গলবার দুপুরে মানিকতলায় পৌঁছন কুণালবাবু। সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা জয় দাস। বিশ্বনাথকে ঘরে ফেরানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে জেনেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন ওই এলাকার মহিলারা। তাঁদের অভিযোগ, ওই যুবক ও তাঁর দলবল বেশ কিছুদিন ধরে এলাকার মহিলাদের নানাভাবে হেনস্তা করেছেন। ভোটের ফল প্রকাশের পর দেখে নেওয়ার হুমকিও দিয়েছেন। সেই কারণেই গণরোষের মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি চান না কেউ। তাই প্রথমে বিশ্বনাথকে এলাকায় ফেরাতে রাজি হননি স্থানীয়রা। পরে কুণাল ঘোষ তাঁদের বুঝিয়ে পরিস্থিতি আয়ত্তে আনেন। সকলকে মিষ্টি মুখও করান তিনি। আরও কোনও অন্যায় কাজে শামিল হবেন না বলে সকলের সামনে প্রতিজ্ঞাও করেন বিশ্বনাথ।

[আরও পড়ুন:তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্যকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে, উত্তপ্ত কেতুগ্রাম]

এবিষয়ে সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালকে কুণাল ঘোষ জানান, তিনি জানতে পেরেছিলেন ওই যুবক বাড়ি ফিরতে পারছেন না। তাই সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। পাশাপাশি নাড্ডার বাংলা সফরকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “এখানে-ওখানে না ঘুরে নাড্ডারা তো এলাকায় গিয়ে দেখতে পারেন কেন এত জনরোষ তৈরি হয়েছে। ঔদ্ধত্যের কারণেই এই পরিণতি ওদের।” কিন্তু হঠাৎ করে কেন উদ্ধত হয়ে উঠেছিলেন বিশ্বনাথ? কী কারণে পাড়া প্রতিবেশীদের দেখে নেওয়ার হুমকি দিতে শুরু করেছিলেন? সে বিষয়ে বিস্ফোরক তথ্য দিলেন কুণাল।

তাঁর দাবি, বিশ্বনাথ জানিয়েছেন, ভোটে মানিকতলা এলাকায় অশান্তি ছড়ানোর জন্য তাঁকে ও আরও বেশ কয়েকজনকে ২ হাজার টাকা করে দিয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থী (BJP candidate) কল্যাণ চৌবে। টাকার লোভেই এলাকায় অশান্তি করেছে তাঁরা। বিশ্বনাথের কথায়, “আমার বিপদের খবর পেয়ে দলের কেউ পাশে এসে দাঁড়াননি। কিন্তু ছুটে এসেছেন কুণাল ঘোষ। ” সেই কারণে তৃণমূল নেতাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। তৃণমূলের তরফে বলা হয়েছে, বিশ্বনাথকে কোনওদিনই দলে ঠাঁই দেওয়া হবে না। তবে নাগরিক হিসেবে তিনি সুস্থ থাকুন, সেটাই কাম্য।

দেখুন ভিডিও:

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে