BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

আমফানের ত্রাণের ত্রিপল দিয়ে একুশের সভা শোনার মঞ্চ! বিতর্কে তৃণমূল

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 21, 2020 10:25 pm|    Updated: July 21, 2020 10:25 pm

An Images

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: বাগুইআটিতে (Baguiati) ত্রাণের ত্রিপল টাঙিয়ে বসে একুশের সভার মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতা শুনল তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা! বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই নিন্দার ঝড় বইতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহলে। যদিও বিষয়টি বিরোধীদের চক্রান্ত বলেই দাবি শাসকদলের একাংশের।

করোনা সংক্রমণের শঙ্কায় এবছর ভারচুয়ালি একুশে জুলাই পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল করেছে তৃণমূল। ভারচুয়ালি বক্তব্য রাখবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সে কথাও আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল। সেই মতো প্রস্তুতি নিয়েছিল রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের তৃণমূলের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। কোথাও ত্রিপল টাঙিয়ে, কোথাও আবার মঞ্চ করে জায়েন্ট স্ক্রিনের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। যাতে এক জায়গায় বসে অনেকে মিলে দলনেত্রীর বক্তব্য শুনতে পারেন। এমনই আয়োজন করা হলেছিল বিধাননগর পুরনিগমের ১১ ওয়ার্ডেও। ত্রিপল দিয়ে ঘিরে দেওয়া হয়েছিল অস্থায়ীভাবে তৈরি মঞ্চ। সেখানে ব্যবহৃত ত্রিপলে থাকা রাজ্য সরকারের স্টিকার নিয়েই শুরু বিতর্ক। কারণ, ত্রিপলে থাকা স্টিকারে স্পষ্ট লেখা, “পশ্চিম বঙ্গ সরকার, দুর্গত মানুষদের পাশে।”

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরে রহস্যমৃত্যু বাংলার জওয়ানের, যুবকের কফিনবন্দি দেহ ফেরার অপেক্ষায় পরিবার]

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই কংগ্রেসের প্রদেশ স্তরের নেতা সোমেশ্বর বাগুই বলেন, ” ত্রিপল নিয়ে দুর্নীতি হচ্ছে এ খবর আমাদের কাছে আগেই ছিল। আমফানের ত্রিপল বিলি নিয়ে আমরা হিসাব প্রকাশ করার দাবি জানিয়ে বিধাননগরে মেয়রের কাছে স্মারকলিপিও দিয়েছিলাম। এই ঘটনা বুঝিয়ে দিল ত্রিপল বিলি নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে।” যদিও গোটা ঘটনাটি বিরোধীদের চক্রান্ত বলেই দাবি কাউন্সিলরের ঘনিষ্ঠদের। তাঁদের কথায়, বিরোধীরা চক্রান্ত করে ত্রিপলে সরকারি স্ট্যাম্প লাগিয়ে দিয়েছে!

[আরও পড়ুন: রাজ্যে সংক্রমিতের সংখ্যা ছাড়াল ৪৭ হাজার, সামান্য স্বস্তি দিচ্ছে সুস্থতার উর্ধ্বমুখী গ্রাফ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement