৩১ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অশান্ত পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ভাটপাড়া যাচ্ছে তৃণমূলের পরিষদীয় দল৷ আগামী ২৮ জুন ভাটপাড়ায় যাচ্ছেন রাজ্যের একঝাঁক মন্ত্রী৷ তৃণমূল প্রতিনিধিদলে থাকছেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, পুর্ণেন্দু বসু, সুজিত বসু, ব্রাত্য বসু, পার্থ ভৌমিক এবং নির্মল ঘোষ। ভাটপাড়ার পাশাপাশি, সংলগ্ন এলাকার পরিস্থিতিও খতিয়ে দেখবে এই প্রতিনিধিদল। এলাকার মানুষের সঙ্গে কথা বলার পর সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে রিপোর্ট দেবেন তাঁরা। বুধবার বিধানসভায় গিয়ে ভাটপাড়া নিয়ে বিজেপিকে খোঁচা দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সমালোচনার সুরে বলেন, ‘‘বিজেপি ক্ষমতায় আসলে কী হতে পারে, ভাটপাড়াই তার উদাহরণ৷’’

[ আরও পড়ুন: যোধপুর পার্কে ফ্ল্যাটে বৃদ্ধাকে খুন, পুলিশের জালে মূল অভিযুক্ত ]

দুই স্থানীয় যুবকের মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে চলতি মাসের মাঝামাঝিতে নতুন করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়ার মতো এলাকা৷ স্থানীয়রা অভিযোগ, পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে এলাকার ১৭ বছরের কিশোর রামবাবু সাউ, বছর চল্লিশের ধরমবীর সাউয়ের৷ এই মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কার্যত রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে ভাটপাড়ার পরিস্থিতি৷ পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন স্থানীয়রা৷ পুলিশের উপর ইটবৃষ্টি করা হয়৷ পালটা লাঠিচার্জ করে এবং কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটায় পুলিশ৷ রাজ্য ছাড়িয়ে জাতীয় ইস্যুতে পরিণত হয় ভাটপাড়ার ঘটনা৷ এরপরই ভাটপাড়ায় মৃত দুই ব্যক্তির পরিবারের সঙ্গে দেখা করে বিজেপির সংসদীয় দল৷ যে প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ এসএস আলুওয়ালিয়া৷ এছাড়া প্রতিনিধি দলে ছিলেন বিজেপি সাংসদ সত্যপাল সিং ও বিডি রাম৷ দোষীদের চরম শাস্তি দেওয়ার আশ্বাস দেন তাঁরা৷ পাশাপাশি মৃতদের পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়ারও ঘোষণা করে গেরুয়া শিবির৷

[ আরও পড়ুন: ফের স্কুলের শৌচাগারে হাতের শিরা কাটল দশম শ্রেণির ছাত্রী, চাঞ্চল্য বালিগঞ্জে ]

বারাকপুর পুলিশ কমিশনারের দায়িত্ব নিয়েই ভাটপাড়ায় শান্তি ফেরাতে তৎপর হন মনোজ ভার্মা৷ বিশাল পুলিশ বাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে এলাকা ডমিনেশনের কাজ করেন তিনি৷ এলাকার পরিস্থিতি সামাল দিতে ইতিমধ্যে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং৷ বৈঠকে সকল পক্ষকে সবরকম ভাবে এলাকায় শান্তি ফেরানোর আবেদন করা হয়েছে প্রশাসনের তরফে৷ অন্যদিকে, ভাটপাড়ায় শান্তি ফেরাতে মঙ্গলবারই শান্তি মিছিল করেছে বাম-কংগ্রেস৷ যে মিছিলকে কেন্দ্র করে ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকার পরিস্থিতি৷এদিন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় দাবি করেন, ভোটের ফলাফল ঘোষণার আগে পর্যন্ত শান্ত ছিল ভাটপাড়া। ওখানে বিজেপি জেতার পরই এই পরিস্থিতি। প্রকারান্তরে এই হিংসার পিছনে গেরুয়া শিবিরকেই দায়ী করেছেন পার্থবাবু।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং