১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শনিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রশিক্ষণরত সব কর্মপ্রার্থীরাই বসতে পারবেন টেট-এ, ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: November 1, 2017 8:07 am|    Updated: November 1, 2017 8:07 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাথমিকে টেট নিয়ে জটিলতা কাটাতে তৎপর রাজ্য সরকার। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এবছর প্রশিক্ষণরত সব কর্মপ্রার্থীকেই টেট-এ বসার সুযোগ দেওয়া হবে। আগামী ১৫ নভেম্বর ফের নতুন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। শিক্ষামন্ত্রীর অভিযোগ, টেট নিয়ে উদ্দেশ্যেপ্রণোদিতভাবে বারবার মামলা করা হচ্ছে। কয়েকজনের জন্য হাজার হাজার কর্মপ্রার্থীকে অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে।

[প্রাথমিকের টেট-এ বসতে পারবেন প্রশিক্ষণরতরাও, নির্দেশ হাই কোর্টের]

প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত না প্রশিক্ষণহীন, কাদের প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ করা হবে? কারাই বা টেট-এ বসার সুযোগ পাবেন? এই প্রশ্নে বিতর্ক দীর্ঘদিনের। এই নিয়ে একের পর এক মামলায় রীতিমতো জেরবার রাজ্য সরকার। এই পরিস্থিতিতে প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য ফের টেট নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। গত ২৩ অক্টোবর জারি হয়েছে বিজ্ঞপ্তিও। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শুধুমাত্র যাঁরা উচ্চমাধ্যমিক বা সমতুল পরীক্ষায় ৫০ শতাংশ নম্বর পেয়েছেন ও প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত, তাঁরাই টেট-এ বসার সুযোগ পাবেন। কিন্তু, সরকারের এই বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা করেছিলেন ২০০ জন প্রশিক্ষণরত কর্মপ্রার্থী। আদালত জানিয়েছে, প্রশিক্ষণরত কর্মপ্রার্থীদেরও টেটে-এ বসার সুযোগ দিতে হবে। এমনকী, টেটে-এ বসতে পারবেন উচ্চমাধ্যমিকে ৫০ শতাংশের কম নম্বর পাওয়া স্পেশাল এডুকেটররাও। তবে এই রায় মামলাকারী ২০০ জন প্রশিক্ষণরত কর্মপ্রার্থীদের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে জানিয়েছে কলকাতা হাই কোর্ট। বুধবার শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, এতদিন সকলে বলছিল, কেন প্রশিক্ষণহীনদের প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ করা হচ্ছে? শাসকদল নিজেদের লোককে নিয়োগ করছে। টেট নিয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মামলা করা হচ্ছে। প্রশিক্ষণরত সমস্ত কর্মপ্রার্থীরাই টেটে-এ বসার সুযোগ পাবেন। এমনকী, যাঁরা  প্রথম বর্ষের পড়ুয়া, তাঁরাও টেটে বসার সুযোগ পাবেন। আগামী ১৫ নভেম্বর ফের নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি হবে। কলেজগুলিকে শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশ, আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে প্রথম বর্ষের প্রশিক্ষণরতদের পরীক্ষার  রেজাল্ট বের করতে হবে। ডিসেম্বরেই দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা নিতে হবে। তাঁর সাফ কথা, প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে কোনও বিলম্ব বরদাস্ত করা হবে।

[পান-সিগারেটের দোকানে বিস্কুট-পানীয় বিক্রিতে না, প্রতিবাদে ব্যবসায়ীরা]

এদিন টেট নিয়ে জটিলতা কাটাতে ফের কর্মপ্রার্থীদের আলোচনায় বসার আহ্বান জানান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর অভিযোগ, সরকার সঙ্গে আলোচনা না করেই, আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছেন কর্মপ্রার্থীদের একাংশ। কয়েকজনের জন্য হাজার হাজার কর্মপ্রার্থীকে অসুবিধায় পড়তে হচ্ছে।

[রবিনসন স্ট্রিটের ছায়া, বন্ধ ফ্ল্যাটে মৃত মায়ের দেহ আগলে ছেলে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement