BREAKING NEWS

৮ শ্রাবণ  ১৪২৮  রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ফেসবুক লাইভে স্ত্রীকে আক্রমণ, ‘ওঁরা কলঙ্কিত নায়ক-নায়িকা’, শোভন-বৈশাখীকে পালটা রত্নার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 14, 2021 11:58 am|    Updated: June 14, 2021 12:40 pm

Tussle errupts again between Sovan Chatterjee-Baisakhi Banerjee and Ratna Chatterjee over facebook Live | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের গৃহবিবাদ প্রকাশ্যে। স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় সম্পর্কে আবারও সরব হলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় (Sovan Chatterjee)। ভোটের আগে বিজেপিতে যোগ দেওয়া নেতা-মন্ত্রীদের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে তৈরি হওয়া জল্পনার মাঝেই আবার বেহালা পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক রত্না চট্টোপাধ্যায়কে নিশানা করলেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র। ফেসবুক লাইভে অধ্যাপিকা-বন্ধু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Baisakhi Banerjee) দেওয়া সাক্ষাৎকারে শোভন চট্টোপাধ্যায় একের পর এক অভিযোগ করলেন। পালটা জবাব দিয়েছেন রত্নাদেবীও।

নারদ মামলায় (Narada) গত ১৭ মে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করে সিবিআই। খবর পেয়ে সেদিনই নিজাম প্যালেসে হাজির হন স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায় (Ratna Chaterjee)। কিন্তু রত্নার সেই ভূমিকা যে তিনি ভাল চোখে দেখেননি, তা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। ফেসবুক লাইভে অধ্যাপিকা-বন্ধু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে বিরক্তিও প্রকাশ করেছেন শোভনবাবু। কলকাতার প্রাক্তন মেয়রের কথায়, ”যারা নিজাম প্যালেসে তোমার অনুপস্থিতির কথা বলছে, তাতে ঘৃতাহুতি দিতেই রত্না চট্টোপাধ্যায়ের মিথ্যে বয়ান। নিজাম প্যালেসে রত্না যখন আমার সঙ্গে কথা বলতে আসে, তখন রত্নাকে আমি চলে যেতে বলেছিলাম। লোক পাঠিয়ে সিবিআইকে বলেছিলাম, আপনাকে সরাসরি বলতে সেখান থেকে চলে যেতে। রত্না আমাকে আইনত সাহায্য করেছে – এরকম কোনও প্রশ্নই ওঠে না। গ্রেপ্তারির শুরু থেকে জামিন পাওয়া পর্যন্ত, সবসময় বৈশাখীই সঙ্গে ছিল।”

[আরও পড়ুন: ‘মমতাকে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চাই’, টুইট করে দলত্যাগ মুকুল ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেত্রীর]

রত্নাকে বিয়ে করা তাঁর চরম ভুল সিদ্ধান্ত ছিল বলে ফেসবুক লাইভে দাবি করেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ”তুমি আমার সঙ্গে ছিলে গত চার বছর। আমি সঠিক সিদ্ধান্ত নিচ্ছি। তার আগের ২২ বছরের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। রত্নাকে স্ত্রী হিসেবে বিশ্বাস করে ভুল করেছিলাম। রত্না অন্য যুবকের সঙ্গে জীবনযাত্রা বেঁধে নিয়েছে। স্বামীর এ হেন বক্তব্য শুনে পালটা জবাব দিয়েছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়ও। বেহালা পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক বলেন, ”শোভন মিথ্যেবাদী, নোংরা। সিবিআই কিছু বলেনি। মানবিকতা বোধ ছিল বলেই গিয়েছিলাম। শোভন পাগল। বৈশাখী এমন কিছু খাওয়ায়, তাতে পাগল হয়ে গেছে, স্লো পয়জন করা হচ্ছে।” তাঁর আরও দাবি, ”কে ব্যাভিচারী মানুষ সবাই জানে। আমি পরপুরুষকে ঢোকাইনি, আমি কলঙ্কিত হলে ভোটে জিততাম না। বেহালার মানুষ আমাকে কলঙ্কিত করেনি।”

বৈশাখী-রত্নার মধ্যে ‘শীতল যুদ্ধ’ নিয়ে প্রাক্তন মেয়রের কটাক্ষ, ”রত্না চট্টোপাধ্যায় কেন বৈশাখীর ভূত দেখেন, উনিই বলতে পারবেন!” জবাবে তৃণমূল বিধায়কের প্রশ্ন, ”কেন ফোবিয়ায় ভুগব না? এই মহিলা শুধু আমার নয়, অনেক মহিলারই ঘর ভেঙেছে।” রত্না চট্টোপাধ্যায় উচ্ছৃঙ্খল জীবন-যাপনে অভ্যস্ত বলেও অভিযোগ করেছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। বলেছেন, ”আমি যে বাড়িতে থাকতাম, সেই বাড়িতে এখন নেশার আসর বসে। ২৭ জানুয়ারি দিঘার হোটেলের কিছু উদ্দাম নাচের ভিডিও রয়েছে।” স্ত্রী রত্নার পালটা জবাব, ”ছবিতে নেশার জিনিস থাকলে দেখান উনি, নাটক করে লাভ নেই। দিঘার হোটেলে উদ্দাম নাচের ছবির প্রমাণ থাকলে, দেখাক।”

[আরও পড়ুন: চলতি মাসেই চালু হবে লোকাল ট্রেন? প্রস্তুতি সেরে রাজ্যের কাছে পরিষেবা শুরুর আবেদন রেলের

রত্না চট্টোপাধায়কে ফেসবুক লাইভে আক্রমণ করেছেন শোভনের বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তাঁর কথায়, ”রত্না চট্টোপাধ্যায় আমাকে ইনসিকিওর প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন। আমার সবচেয়ে বড় সিকিউরিটি শোভন চট্টোপাধ্যায়। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ভালোবাসা, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্নেহ যতদিন সঙ্গে আছে, ততদিন তার ইনসিকিওর হওয়ার কোনও কারণ নেই।” এ নিয়ে রত্নাদেবীর শ্লেষ, ”দু’জন কলঙ্কিত নায়ক-নায়িকা। ছাত্র-যুব সমাজকে কী শেখাচ্ছেন? তাঁরা যেন শিক্ষা দিতে না আসে।” প্রসঙ্গত, শোভন ও রত্নার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে। এই অবস্থায় শোভন-বৈশাখীর ৫৪ মিনিটের ফেসবুক লাইভে রত্নাদেবীর প্রতি একাধিক আক্রমণ নতুন বিতর্ক তৈরি করেছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement