BREAKING NEWS

৮ শ্রাবণ  ১৪২৮  রবিবার ২৫ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতি থেকে বাদ, ‘অপমানিত’ বৈশাখীর স্বামী

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 26, 2019 5:49 pm|    Updated: August 26, 2019 8:58 pm

'very insulting', After removal from JU's EC member Manojit Mandal reply

দীপঙ্কর মণ্ডল: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতি অর্থাৎ এগজিকিউটিভ কাউন্সিলের(ইসি) সরকারি প্রতিনিধির পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত ‘অপমানজনক’৷ উচ্চশিক্ষা সংসদের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে এমনই প্রতিক্রিয়া দিলেন তৃণমূলের শিক্ষক নেতা তথা অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বামী মনোজিৎ মণ্ডল৷

[ আরও পড়ুন: ‘মাথা উঁচু করে বাঁচব’, সব্যসাচী দত্তের ভিডিও বার্তায় জল্পনা ]

পাশাপাশি, শাসকদল এবং শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের প্রতি হতাশা ব্যক্ত করেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের এই অধ্যাপক৷ সাফ জানান, ‘‘রায়চকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের দ্বারা আমার মেয়ে আক্রান্ত হওয়ার পরেও, দলের একনিষ্ঠ কর্মী ছিলাম৷ তবে আমার সঙ্গে কথা না বলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ এতে আমি মর্মাহত৷’’ উচ্চশিক্ষা সংসদ সূত্রে খবর, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারক সংস্থায় চার বছরের জন্য সরকারি প্রতিনিধি পদে মনোজিৎ বাবুকে নিয়োগ করেছিল শিক্ষা দপ্তর৷ কিন্তু সম্প্রতি তাঁর স্ত্রী তথা তৃণমূলের শিক্ষক সংগঠন ওয়েবকুপার একদা সাধারণ সম্পাদিকা বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগদান করায়, এই সিদ্ধান্ত বলে মনোজিৎ মণ্ডলের দাবি৷ তিনি বলেন, ‘‘আমার মেয়াদ শেষ হতে এখনও দেড় বছর বাকি৷ কিন্তু আমার স্ত্রী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগ দিয়েছে বলেই, আমাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ শিক্ষামন্ত্রী আমার সঙ্গে কথা বলবতে পারতেন৷ কিন্তু তেমনটা করা হয়নি৷ আমি এখনও কোন চিঠিও হাতে পাইনি৷’’ যদিও বিষয়টিকে রুটিন বদলি বলেই দাবি করেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷

[ আরও পড়ুন: অর্থ দপ্তরের অনুমতি ছাড়া কোনও নিয়োগ নয় পুরসভায়, বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নির্দেশ নবান্নের ]

এখানেই শেষ নয়, সংবাদমাধ্যম সূত্রে এই খবর জানতে পেরে শাসকদলের বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগরে দেন মনোজিৎ বাবু৷ তিনি জানান, দীর্ঘদিন ধরে শাসকদলের হয়ে কাজ করেছি৷ দলের হয়ে সর্বভারতীয় চ্যানেলে গলা ফাটিয়েছি৷ কিন্তু পরিবর্তে এই পুরষ্কার পেয়ে মর্মাহত৷ সূত্রের খবর, মনোজিৎ বাবুকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃণমূলের সমর্থনকারী শিক্ষক ও ছাত্রদেরও একটা অংশ৷ ইতিমধ্যে উচ্চশিক্ষা সংসদ সূত্রে জানা গিয়েছে, মনোজিৎ বাবুর জায়গায় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতির সরকারি প্রতিনিধির পদে মনোনীত করা হয়েছে বিএড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষা সোমা বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷ মনোনীত করা হচ্ছে৷ যদিও এখনও এই সংক্রান্ত কোনও চিঠি তিনি হাতে পাননি বলেই জানিয়েছেন সোমা দেবী৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement