৩০ চৈত্র  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৩ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘কয়লা দুর্নীতির ৯০০ কোটি টাকা গিয়েছে ভাইপোর কাছে’, অভিযোগ শুভেন্দুর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 4, 2021 2:43 pm|    Updated: April 4, 2021 3:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “কয়লা দুর্নীতির ৯০০ কোটি টাকা গিয়েছে ভাইপোর কাছে”, শনিবার রাতে ভাইরাল হওয়া একটি অডিও ক্লিপকে হাতিয়ার করে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)। কয়লা পাচার কাণ্ড নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই সক্রিয় সিবিআই (CBI)। ইতিমধ্যেই এই মামলায় জনা দুয়েক গ্রেপ্তার হয়েছেন। শুভেন্দুর অভিযোগ, এই দুর্নীতির সঙ্গে সরাসরি জড়িত তৃণমূলের যুব সভাপতি। রবিবার সাংবাদিক বৈঠক থেকে সেই প্রসঙ্গেই মুখ খুললেন নন্দীগ্রামের বিজেপি প্রার্থী। অভিযোগ করলেন,  খোদ মুখ্যমন্ত্রীর মদতে এই পাচার চক্র চলত।

শনিবার রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল একটি অডিও ক্লিপ (এই ক্লিপের সত্যতা সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল যাচাই করেনি)। যার একপ্রান্তে ছিলেন ব্যবসায়ী গণেশ বাগাড়িয়া, অন্যপ্রান্তে কয়লা কাণ্ডে জড়িত বিনয় মিশ্র। ওই অডিও ক্লিপে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে আলোচনা শোনা যায়। ওই রেকর্ডিং অনুযায়ী, কয়লা পাচারের টাকা সরাসরি পাঠানো হত অভিষেকের কাছে। রবিবার এবিষয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী, দীনেশ ত্রিবেদী, বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য। শুভেন্দু অভিযোগ করেন, “১০ বছর ধরে সরকার ও মুখ্যমন্ত্রীর মদতে কয়লা দুর্নীতি হয়েছে। ৯০ থেকে ৯৫ জন পুলিশ আধিকারিক এর সঙ্গে জড়িত। বেশ কয়েকজন আইপিএস অফিসারও এর সঙ্গে জড়িত।”

[আরও পড়ুন: ‘আগে ৫০ টা আসন পাক, পরে ২৯৪ টার স্বপ্ন দেখবে’, বিজেপিকে খোঁচা মমতার]

শুভেন্দুর দাবি, বাঁকুড়ার আইসি অশোক মিশ্র কয়লা পাচারের টাকা পৌঁছে দিতেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। দুর্নীতির ৯০০ কোটি টাকা ইতিমধ্যেই পৌঁছে গিয়েছে ডায়মন্ড হারবারের সাংসদের কাছে। শুভেন্দুর কথায়, সাংসদ হওয়ার পর থেকেই এই দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েন অভিষেক। বিজেপি নেতার দাবি, একাধিকবার এবিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে জানানো হলেও কোনও লাভ হয়নি। তৃণমূল সুপ্রিমো তথা মু্খ্যমন্ত্রীর মদতেই গোটা চক্র চলেছে। গত ১০ বছরে কয়লা কাণ্ডই সব থেকে বড় দুর্নীতি বলে দাবি শুভেন্দুর। তাঁর অভিযোগ, নির্বাচনী কৌশলী প্রশান্ত কিশোরকে যে মোটা টাকা দেওয়া হয়েছে, তা-ও এসেছে কয়লা পাচার থেকেই। গোটা পরিস্থিতি বিবেচনা করে রাজ্যবাসীকে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এই দুর্নীতির ইতি টানার পরামর্শ দিয়েছেন শুভেন্দু। “মুখ্যমন্ত্রীকে এর দায় নিতে হবে, উনি ধৃতরাষ্ট্র হয়ে থাকতে পারেন না”, এমনই মন্তব্য করলেন দীনেশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement