২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রাজ্য সরকারের কর্মীদের জন্য সুখবর, জানুয়ারিতে মিলবে ১৫% বকেয়া ডিএ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 7, 2017 11:34 am|    Updated: September 7, 2017 11:34 am

WB govt to reimburse 15% of pending DA

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুজোর মুখে রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের জন্য সুখবর। বকেয়া ১৫ শতাংশ ডিএ পাবেন কর্মীরা। নজরুল মঞ্চে কর্মচারীদের সম্মেলনে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। আগামী বছরের পয়লা জানুয়ারি থেকে মিলবে এই বকেয়া মহার্ঘ ভাতা। তবে কেন্দ্র সরকারের থেকে রাজ্যের কর্মীদের ডিএর ফারাক এখনও রয়ে গেল ৩৯ শতাংশ।

[পুজোয় স্পেশাল বন্ধু চাই? ভরসা থাকুক এই অ্যাপেই]

এই দূরত্ব ঘোচানোর প্রতিশ্রুতিও এদিনের সভায় দিয়ে রেখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়েছেন ২০১৯-এর মধ্যে ধাপে ধাপে সমস্ত বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দেওয়া হবে। বকেয়া ডিএ নিয়ে বিস্তর টালবাহানা, মামলা-মোকদ্দমা হয়েছিল। কর্মচারীদের একটি সংগঠন রাজ্য প্রশাসনিক ট্রাইবুনাল বা স্যাটে মামলা করেছিল। স্যাট জানিয়েছিল ডিএ-র বিষয়টি রাজ্যের ইচ্ছের ওপর নির্ভরশীল। রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাই কোর্টে মামলা করেছিল দুটি সংগঠন। এই টানাপোড়েনের মধ্যে বকেয়া ডিএর কথা এদিন ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। ২০১৮ সালের পয়লা জানুয়ারি ১৫ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা পাবেন রাজ্য সরকারের কর্মীরা। সপ্তম বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী একাধিক রাজ্য ডিএ বাড়িয়েছিল। পাশাপাশি কেন্দ্র নিয়ম করে কর্মীদের ডিএ বাড়ায়। এর ফলে রাজ্যের ওপর চাপ বাড়ছিল। কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের ডিএর তফাতও অনেকটাই বেড়ে ৫৪ শতাংশ হয়ে যায়। ৯ মাসের ব্যবধানে ফের রাজ্য সরকার ডিএ ঘোষণা করল।

[প্রেমিকার সঙ্গে টানাপোড়েন, ভিডিও কল চলাকালীন আত্মঘাতী ছাত্র]

তবে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন রাজ্য ডিএ বাড়ালেও, সংবাদমাধ্যমেরও একাংশ তা নিয়ে অপপ্রচার করে। বকেয়া ডিএ নিয়ে পূর্বতন বাম সরকারকে তিনি একহাত নেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভিযোগ, ৩৪ বছর সময়মতো ডিএ না দেওয়ার জন্য এই পরিস্থিতি। পাশাপাশি তাঁর দাবি কয়েক লক্ষ টাকার দেনা মাথায় নিয়ে কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা দেওয়া হচ্ছে। কর্মচারীরা সময়মতো বেতন পান। মহিলা কর্মীদের মাতৃত্বকালীন ছুটি অনেকটাই বাড়ানো হয়েছে। বাছাই করা কর্মীদের সিঙ্গাপুর এবং অক্সফোর্ডে প্রশিক্ষণের জন্য পাঠানো হচ্ছে। এদিন অমিত শাহর সভা বাতিল নিয়েও মুখ্যমন্ত্রী মুখ খোলেন। তাঁর বক্তব্য, এই নিয়ে অহেতুক হইহই হচ্ছে। নিয়মমাফিক বুকিং না করার জন্য এমন পরিস্থিতি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে