BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

এবারে রেশনে ৫৯ টাকা কেজি দরে মিলবে পিঁয়াজ, ঘোষণা রাজ্যের

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 8, 2019 7:01 pm|    Updated: December 8, 2019 7:01 pm

An Images

রাহুল চক্রবর্তী: সোমবার থেকে শহরের রেশন দোকানে ৫৯ টাকা কিলো দরে বিকোবে পিঁয়াজ। রবিবারের বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রশাসনিক কর্তারা। এদিন বৈঠকে হাজির ছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর কৃষি উপদেষ্টা প্রদীপ মজুমদার, ডিরেক্টর অব রেশনিং, খাদ্য দপ্তরের সহ-সচিব অচিন্ত্য পতি-সহ খাদ্য দপ্তরের ও কৃষি বিপণন দপ্তরের আধিকারিকরা। জানা গিয়েছে, প্রাথমিক পর্যায়ে কেবমলমাত্র উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতার ৯৩৪টি রেশন দোকানে এই মূল্যে পিঁয়াজ মিলবে। রাজ্য প্রশাসনের এই উদ্যোগী খুশি রাজ্যবাসী।

পিঁয়াজের দামের ঝাঁজে গৃহস্থের চোখে জল। হাফ সেঞ্চুরি পেরিয়ে দামের পারদ এখনও উর্ধ্বমুখী। এবার সেই দামে লাগাম পরাতে উদ্যোগী রাজ্য প্রশাসন। পিঁয়াজের দামে লাগাম পড়াতে রবিবার খাদ্য দপ্তরের কর্তারা বৈঠকে বসেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ন্যায্যমূল্য দোকানের মালিকরা। জানা গিয়েছে, বৈঠকে বেশকিছু পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে শহরের ন্যায্যমূল্যের দোকানে ভরতুকি দিয়ে পিয়াঁজ বিক্রি করা অন্যতম। পরে বিভিন্ন জেলায় স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে কমদামে পিঁয়াজ বিক্রি করা হবে।

[আরও পড়ুন : খেজুরের মধ্যে চরস ভরে চিনে পাচারের চেষ্টা, কলকাতায় ধৃত ৩]

সোমবার থেকে কলকাতা শহরের ৯৩৫টি রেশন দোকানে মিলবে পিঁয়াজ। প্রাথমিকভাবে ঠিক করা হয়েছে, প্রতি পরিবারকে এক কেজি করে পিঁয়াজ দেওয়া হবে। এর জন্য প্রতিদিন ৯০ টন পিঁয়াজের প্রয়োজন হবে। এমনটাই মনে করছেন রাজ্যের খাদ্য দপ্তরের কর্তারা। এই দামে পিঁয়াজ বিক্রি করে রাজ্য সরকারকে কেজি প্রতি ৫০ টাকা করে ভরতুকি দিতে হবে। তবে যে সব ন্যায্য মূল্যের দোকানের মালিকরা এই দামে পিঁয়াজ বিক্রি করবেন তারা কোনও কমিশন রাখবেন না। এ প্রসঙ্গে অল ইন্ডিয়া ফেয়ার প্রাইস শপ ডিলার্স ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু বলেন, “এই পিঁয়াজ বিক্রিতে আমরা কোনও কমিশন রাখব না। সাধারণ মানুষের কথা ভেবেই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

[আরও পড়ুন :দামের ঝাঁজে কফি হাউসে বন্ধ হল ঐতিহ্যবাহী স্ন্যাকস ‘অনিয়ন পকোড়া’]

জানা গিয়েছে, প্রথমে কলকাতায় এই প্রকল্প চালু করা হচ্ছে। কিন্তু এরপর ধীরে ধীরে জেলায় ৫৯ টাকা কেজি দরে পিঁয়াজ বিক্রি করার পরিকল্পনা রয়েছে। আর তাই স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলোকেও এই পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement