BREAKING NEWS

২২ বৈশাখ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৬ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ট্যাপ হল কীভাবে? মমতার অডিও ইস্যুতে পালটা প্রশ্ন তৃণমূলের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 16, 2021 9:29 pm|    Updated: April 16, 2021 9:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “বিজেপি ফেক নিউজের ফ্যাক্টারি। মমতার নামে গুজব ছড়াচ্ছে।” অমিত মালব্যর প্রকাশ করা অডিও ক্লিপ প্রসঙ্গে পালটা আক্রমণ তৃণমূলের। শুক্রবারই বিজেপি আইটি সেলের প্রধান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শীতলকুচির তৃণমূল প্রার্থী পার্থপ্রতিম রায়কে নিয়ে একটি বিস্ফোরক অডিও ক্লিপ প্রকাশ করেছেন। ক্লিপটি প্রকাশ করে গেরুয়া শিবিরের নেতার দাবি, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি করছেন। শীতলকুচির ঘটনাকে হাতিয়ার করে রাজ্যের ভোটে ধর্মীয় মেরুকরণের চেষ্টা করারও অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। তৃণমূলের পালটা প্রশ্ন, মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ট্যাপ করা হল কীভাবে?

পঞ্চম দফার ভোটের আগে বিজেপির প্রকাশ করা অডিও ক্লিপ ঘিরে রীতিমতো সরগরম হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি। কী আছে সেই অডিও ক্লিপে? বিজেপির দাবি, এটি শীতলকুচির ঘটনার ঠিক পরেই পার্থপ্রতিম রায়ের সঙ্গে মমতার ফোনালাপের অডিও। যাতে পার্থর উদ্দেশে একাধিক নির্দেশ দিতে শোনা গিয়েছে মমতাকে। মুখ্যমন্ত্রীকে বলতে শোনা গিয়েছে, “সবকটা সিআরপিএফকে (CRPF) গ্রেপ্তার করাব। ডেডবডিগুলো এখন রেখে দাও। আজকে পরিবারগুলকে বলবে, কেউ ডেডবডি নেবে না। কালকে ডেডবডিগুলো নিয়ে র‍্যালি হবে।” এরপর পার্থপ্রতিমের উদ্দেশে মমতাকে বলতে শোনা গিয়েছে,”তুমি এক কাজ করো, পুরো এফআইআর করবে। আইনজীবীকে দিয়ে, নিজের ইচ্ছামতো করবে না। বাড়ির লোক যে এফআইআর করবে সেটা আমি বলে দেব ভোটের পর। এখনই পুলিশ বয়ান নিতে গেলে দেবে না। ভাল করে এফআইআর করতে হবে। যাতে কম্যান্ড জোন থেকে শুরু করে এসপি থেকে শুরু করে, সবকটা ফাঁসে।”

[আরও পড়ুন: অতীত রেকর্ড ভেঙে ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত সর্বাধিক, একদিনে মৃত ২৬]

এই অডিও ক্লিপকে হাতিয়ার করে অমিত মালব্য (Amit Malviya) দাবি করছেন, “মমতা আর পার্থপ্রতিমের এই ফোনালাপ থেকেই স্পষ্ট, শীতলকুচিতে বুথ দখলের চেষ্টা করছিল তৃণমূল। মৃতদেহ নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা করছে মমতা। এই ঘটনাকে নির্বাচনে সম্পূর্ণ মেরুকরণ করার চেষ্টা করছে তৃণমূল। সংখ্যালঘু তোষণের চেষ্টা করছেন মুখ্যমন্ত্রী।” যার পালটা তৃণমূলের তরফে আসরে নামেন দুই সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন এবং সুখেন্দুশেখর রায়। তাঁদের প্রশ্ন, “আমাদের দেশে যে কেউ চাইলে যে কোনও লোকের ফোন ট্যাপ করতে পারে? বহিরাগত বর্গী এই ফোনগুলো ট্যাপ করে। বিজেপির মিথ্যে প্রচারের ফ্যাক্টারির মালিক এই বর্গী। বহিরাগত বর্গীরা তৃণমূলের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে।” শুধু তাই নয়, শীতলকুচি প্রসঙ্গেও একাধিক প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল। সুখেন্দুশেখরের প্রশ্ন, “শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনী গুলি চালিয়েছিল নাকি চালায়নি? চালালে কীসের ভিত্তিতে চালাল? আত্মরক্ষার জন্য গুলি চালালে তার ভিডিও ফুটেজ কোথায়? আইন অনুযায়ী বলা আছে ভিড় নিয়ন্ত্রণে যত সম্ভব কম বল প্রয়োগ করতে হবে। সেটা কেন্দ্রীয় বাহিনী কেন মানল না?”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement