BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মাও-উপদ্রুত জেলার বরাদ্দ নিয়ে সংঘাত, কেন্দ্রকে চিঠি পাঠানোর সিদ্ধান্ত রাজ্যের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 10, 2018 8:32 am|    Updated: January 10, 2018 8:32 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এবার মাও-উপদ্রুত জেলাগুলিতে উন্নয়ন খাতে ররাদ্দ নিয়ে কেন্দ্র-সংঘাত প্রকাশ্যে চলে এল৷ সূত্রে খবর, রাজ্যকে চিঠি দিয়ে কেন্দ্র জানিয়েছে, এবছর রাজ্যে মাও উপদ্রুত পাঁচটি জেলার জন্য উন্নয়নে মাত্র ১ কোটি টাকা করে বরাদ্দ করা হবে৷ মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্ত মানতে নারাজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ কেন্দ্রে দেওয়া ওই টাকা নেবে না রাজ্য সরকার। মাও উপদ্রুত জেলার উন্নয়নে বরাদ্দ কমানোর প্রতিবাদে কেন্দ্রকে চিঠিও পাঠাবে নবান্ন

[চপ্পলে বিদেশি মুদ্রা পাচার, কলকাতা বিমানবন্দরে পাকড়াও দুই যুবক]

দেশের মাওবাদী এলাকাগুলিতে যৌথভাবে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্প চালায় কেন্দ্র ও রাজ্য৷ নির্দিষ্ট তালিকা মেনে মাও উপদ্রুত জেলার জন্য প্রতিটি রাজ্যের জন্য আলাদা ভাবে অর্থও বরাদ্দ করে মোদি সরকার৷ এ রাজ্যের পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম ও বীরভূম মাওবাদী অধ্যূষিত জেলা হিসেবে পরিচিত৷ পাঁচটি জেলাই কেন্দ্রের তালিকাভুক্ত৷ কিন্তু, এ বছর মাও উপদ্রুত জেলাগুলিতে উন্নয়নখাতে বরাদ্দ কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র৷ সূত্রে খবর, রাজ্যকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে, পাঁচটি জেলার উন্নয়নে মাত্র এক কোটি টাকা করে দেওয়া হবে৷ কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছে রাজ্য সরকার৷ রাজ্যের বক্তব্য, ওই পাঁচটি জেলা কেন্দ্র সঙ্গে যৌথভাবে একাধিক উন্নয়ন প্রকল্প চালায় রাজ্য৷ এত কম টাকায় সেই প্রকল্পের কাজ করা সম্ভব নয়৷ তাই কেন্দ্রের বরাদ্দ টাকা না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নবান্ন৷ শুধু তাই নয়, বরাদ্দ ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে রাজ্যের তরফে কেন্দ্রকে চিঠিও পাঠানো হবে৷

[সম্পত্তির লোভে প্রতিবন্ধী বোনকে খুন দিদির, ধুন্ধুমার বেহালায়]

মঙ্গলবার দেশের ১১৫টি পিছিয়ে পড়া জেলার একটি তালিকা প্রকাশ করেছে কেন্দ্র৷ সেই তালিকায় স্থান পেয়েছে এ রাজ্যের বীরভূম, মালদহ, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা৷ কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নিয়েছে, দেশে সবকটি পিছিয়ে পড়া জেলায় উন্নয়ন কাজে গতি আনতে একজন করে মনিটরিং অফিসার নিয়োগ করবে৷ সেইমতো এ রাজ্যের পাঁচটি জেলার প্রশাসনের মাথায় মনিটরিং অফিসার বসাতে চাইছে মোদি সরকার৷ এই অফিসারদের সরাসরি দিল্লি থেকেই নিয়োগ করা হবে৷ তাতেও আপত্তি তুলেছে রাজ্য৷

[পেট-পায়ুদ্বার-মহিলাদের যৌনাঙ্গ, ড্রাগ পাচারের নয়া ছকে ধাঁধায় গোয়েন্দারা

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement