BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

তিক্ততা অতীত! বিজয়ায় দিলীপের বাড়ি গিয়ে আশীর্বাদ নিয়ে এলেন সৌমিত্র খাঁ

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 27, 2020 11:31 am|    Updated: October 27, 2020 11:35 am

An Images

রুপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: বিজেপি (BJP) রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) বাড়িতে গিয়ে বিজয়ার প্রণাম সেরে এলেন দলেরই যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁ (Saumitra Khan)। মঙ্গলবার সাতসকালে দিলীপের বাড়িতে যান সৌমিত্র। সঙ্গে ছিলেন দলের সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) সুব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু (Sayantan Basu)। যাবতীয় তিক্ততা ভুলে দিলীপের কাছে আগামী দিনের জন্য আশীর্বাদ চেয়ে নিয়েছেন সৌমিত্র। সেই সঙ্গে দলের রাজ্য সভাপতির সুস্বাস্থ্য কামনা করেছেন তিনি। দু’জনকে উপহার বিনিময় করতেও দেখা গিয়েছে।

West Bengal BJYM chief Saumitra Khan meets state BJP president Dilip Ghosh

সম্প্রতি দিলীপ ঘোষের একটি পদক্ষেপের পর বিষ্ণুপুরের সাংসদের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের তিক্ততা নিয়ে বহু জল্পনা কল্পনা চলেছে। আসলে, পুজোর মধ্যেই হঠাত যুব মোর্চার (BJYM) সব রাজ্য কমিটি সাংগঠনিক কারণে ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দিলীপ। আর তাতেই গেরুয়া শিবিরের রাজ্য সভাপতি এবং রাজ্য যুব মোর্চার সভাপতির তিক্ততা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে যায়। শোনা যায় সৌমিত্র নাকি পদত্যাগ করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এমনকী, যুব মোর্চার হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকেও নাকি তিনি বেরিয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু মঙ্গলবার বিজয়ার প্রণাম সারতে দিলীপের বাড়িতে গিয়ে তিনি বার্তা দিয়ে দিলেন, সব ঠিকই আছে। দলের রাজ্য সভাপতির সঙ্গে তাঁর কোনও ব্যক্তিগত সমস্যা নেই।

[আরও পড়ুন: ‘রাজনীতিতে সত্যিকারের করোনা বিজেপি’, দিলীপকে তীব্র কটাক্ষ ফিরহাদের]

আসলে, একুশের লক্ষ্যে যে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে তা বিজেপির সব স্তরের নেতাই বুঝতে পারছেন। তাই রাজনৈতিক মতানৈক্য থাকলেও তাঁরা তা মিটিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছেন। দিন দু’য়েক আগে বিজেপির সর্বভারতীয় পদাধিকারী অনুপম হাজরাকে দেখা গিয়েছিল দলের কর্মীদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে সতর্ক করতে। আজ সৌমিত্র খাঁ-ও বুঝিয়ে দিলেন দিলীপ ঘোষের সঙ্গে রাজনৈতিক মতানৈক্য থাকলেও ব্যক্তিগত সম্পর্কে এর কোনও প্রভাব পড়েনি। যাবতীয় তিক্ততা, বিবাদ, মতানৈক্য ভুলিয়ে দিয়েছে উৎসব! দুই নেতাকেই এদিন একে অপরের সঙ্গে সৌজন্য বিনিময় করতে দেখা গিয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement