১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘অবৈধ কাজ প্রমাণিত হলে ইস্তফা দেব’, মুখ্যমন্ত্রীকে পালটা দিলেন রাজ্যপাল

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: February 2, 2022 6:31 pm|    Updated: February 2, 2022 6:47 pm

West Bengal Governor Jagdeep Dhankhar slams CM Mamata Banerjee | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের সংঘাতে রাজ্য-রাজ্যপাল। তাঁর বিরুদ্ধে তোলা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবি করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)। অবৈধ কাজ প্রমাণিত হলে ইস্তফা দেবেন বলেও সাফ জানালেন তিনি।

রাজ্যপাল পদে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাজ্য সরকার ও মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বারবার সংঘাতে জড়িয়েছেন জগদীপ ধনকড়। টুইট যুদ্ধে জড়িয়েছেন মমতা-ধনকড়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পারদ চড়েছে অশান্তির। এই পরিস্থিতিতে বুধবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়াম থেকে ধনকড়কে তীব্র আক্রমণ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কয়েকঘণ্টার মধ্যেই তাঁর পালটা দিলেন রাজ্যপাল।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলায় বিয়াল্লিশে ৪২ চাই’, লোকসভায় উত্তরপ্রদেশেও প্রার্থী দেবে তৃণমূল, ঘোষণা মমতার]

বুধবার বিকেলে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ধনকড় বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি আমার শ্রদ্ধা রয়েছে। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে যা অভিযোগ করা হচ্ছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। আমার টেবিলে কোনও ফাইল পড়ে নেই। তাজ বেঙ্গল থেকে খাবারও আমার কাছে আসে না। আমি ৯০০ টুইট করেছি ওনাকে, একটারও উত্তর পাইনি। পেগাসাস নিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যা বলেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যে। ওনার কথা শুনে আমি স্তম্ভিত।” ধনকড় আরও বলেন, “আমার বিরুদ্ধে আজ যা অভিযোগ করা হয়েছে, তার সত্যতা প্রমাণিত হলে আমি ইস্তফা দেব। বাংলায় আইনের শাসন নেই, শাসকের আইন চলছে।” বাংলার পরিবেশ না বদলালে শিল্প আসবে না বলেও তোপ দাগেন ধনকড়। পাশাপাশি ফের তিনি প্রশ্ন তোলেন মা ক্যান্টিন নিয়ে। 

 

উল্লেখ্য, বুধবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধনকড়কে উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন, “সব অফিসার, আমলাদের ডাকছে। কখনও সিপিকে ডাকছে, কখনও সিএসকে ডাকছে। কোনও কাজ নেই, সবজান্তা। অথচ এটাই জানে না যে মুখ্যমন্ত্রীর অনুমতি ছাড়া অফিসারদের এভাবে ডাকা যায় না। সবার ১১৯ (ভারতীয় দণ্ডবিধি) কেড়ে নিয়েছে। আর এখন আর্টিক্যাল দেখাচ্ছে।” এখানেই শেষ নয়, সাধারণতন্ত্র দিবসের (Republic Day 2022) উল্লেখ করে রাজ্যপালকে ‘ঘোড়ার পাল’ বলেও তীব্র আক্রমণ করেন মমতা।

[আরও পড়ুন: ‘ঘোড়ার পাল!’, তৃণমূলের সাংগঠনিক নির্বাচনের মঞ্চ থেকে ধনকড়কে তীব্র আক্রমণ মমতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে