১১ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২৫ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বিমান-সূর্য পরবর্তী সিপিএমের দায়িত্ব কার কাঁধে, জল্পনা শুরু আলিমুদ্দিনের অন্দরমহলে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 13, 2022 3:04 pm|    Updated: January 13, 2022 3:04 pm

Who will be in the chair of CPM, West Bengal after Biman Basu-Surykanta Mishra, discussion is going on | Sangbad Pratidin

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: বঙ্গ রাজনীতির বাম (Left Front) আকাশে আগামীতে আলো ছড়াবে কে?
লক্ষ টাকার এই প্রশ্নে এখনও উত্তর হাতড়াচ্ছে দ্বিধাভক্ত আলিমুদ্দিন স্ট্রিট। এক পক্ষের ভরসা সাংগঠনিক দীপের প্রভায়। অন্যপক্ষের বাজি সংসদীয় পথের চেনা সুজনে।

ভূমিশয্যা নেওয়া সংগঠন বিমান বসুর (Biman Basu) পর স্যালাইন দিয়ে কোনওক্রমে বাঁচিয়ে রাখার কঠিন কাজটা এতদিন করে গিয়েছেন পূর্ব মেদিনীপুরের নারায়ণগড়ের সূর্যকান্ত মিশ্র (Suryakanta Mishra)।‌‌ কিন্তু বয়সের ঊর্ধ্বসীমার নতুন নিয়মে অস্তাচলে যেতে হচ্ছে তাঁকে। আলিমুদ্দিনের অন্দরমহল সূত্রে খবর, সূর্যকান্তর ছেড়ে যাওয়া অধিনায়কের রিস্ট ব্যান্ডের দাবিদার এখন তিনজন।‌‌‌‌‌ প্রথমজন, দলের অভ্যন্তরে, প্রচারের আলোর বাইরে থেকে সংগঠন সামলে আসা শ্রীদীপ ভট্টাচার্য। দ্বিতীয় জন, সংসদীয় রাজনীতির পরিচিত মুখ সুজন‌ চক্রবর্তী (Sujan Chakraborty)। সংসদীয় বনাম সংগঠনের এই চিরায়ত দ্বৈরথের মাঝে রিংয়ে রয়েছে আরও এক প্রতিদ্বন্দ্বী। দলের সংখ্যালঘু মুখ মহম্মদ সেলিম।‌ পলিটব্যুরো সদস্য, বাংলার সঙ্গে হিন্দি ও ইংরেজিতে স্বচ্ছন্দ, সর্বভারতীয় রাজনীতির আঙিনায় বিচরণের কারণে একসময়ের সাংসদ তথা রাজ্যের প্রাক্তন এই মন্ত্রী কারও কারও ব্যাখ্যায় ‘কালো ঘোড়া’।

[আরও পড়ুন: WB Civic Polls: পুরভোট পিছতে পারে কে? হাই কোর্টের প্রশ্নে একে অন্যের দিকে আঙুল তুলছে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের]

আলিমুদ্দিনের চর্চার প্রথম নাম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শ্রীদীপ ভট্টাচার্য। কিন্তু হাওড়ার একদা এই জেলা সম্পাদকের অন্য জেলাগুলিতে পরিচিতি নগণ্য। সাধারণত পার্টি ক্লাস নেওয়ার দায়িত্ব তাত্ত্বিক এই নেতার। পার্টি কর্মীরা তাঁর কথা শুনলেও মানুষ কেন শুনবে? এই প্রশ্নে সামান্য ‘ব্যাকফুটে’ শ্রীদীপ।

আবার শ্রীদীপের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী সংসদীয় রাজনীতি থেকে উঠে আসা মুখ, দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রাক্তন সম্পাদক, বিধানসভায় বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী নিচুতলায় জনপ্রিয়। তাঁর বাধা আবার ‘সিনিয়রিটি’। সুজনের আগে পার্টির সর্বোচ্চ কমিটিতে জায়গা হয় শ্রীদীপের। পার্টির কোনও কমিটির শীর্ষে বসার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই দু’জনকে নিয়ে জল্পনার মাঝেই দুর্ভেদ্য হয়ে উঠছেন আরও একজন। তিনি পলিটব্যুরোর সদস্য মহম্মদ সেলিম। প্রথম দু’জনের তুলনায় সবদিক থেকেই এগিয়ে তিনি। কিন্তু তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী তিনি নিজেই। বিধানসভা ভোটে ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের (আইএসএফ) সঙ্গে অগ্রণী ভূমিকা নেওয়া বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে পলিটব্যুরোর এই সদস্যর সামনে। ভোটে শূন্য হয়ে যাওয়া বামেদের আসামির কাঠগড়ায় তিনি। তাই সম্পাদকের চেয়ার দখলের লড়াইয়ে অনেকটাই পিছিয়ে মহম্মদ সেলিম।

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে লড়বেন উন্নাওয়ের নির্যাতিতার মা, ১২৫ জনের ৫০ জন মহিলা প্রার্থী, ঘোষণা প্রিয়াঙ্কার]

চেয়ার দখলের এই ইঁদুরদৌড়ে তিন নেতা থাকলেও শেষ হাসি কে হাসবেন, তা নির্ভর করছে দুই বর্ষীয়ানের উপর। প্রথমজন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। দ্বিতীয়জন অবশ্যই বিমান বসু।‌ বিচার-বিবেচনা, আলাপ-আলোচনা করে শেষ সিদ্ধান্ত এঁরা দু’জনই নেবেন বলে আলিমুদ্দিন সূত্রে খবর। তবে সুজন চক্রবর্তীর মতে, কমিউনিস্ট পার্টিতে কে কী দায়িত্ব পাবেন – এ তো অঙ্ক কষে ঠিক হয় না। সম্মেলনের মঞ্চ থেকে সিদ্ধান্ত হয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে