১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

অধরা ঘর বাঁধার স্বপ্ন, বিয়ের আগেই নিউটাউনে দুর্ঘটনায় মৃত্যু প্রেমিক যুগলের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 27, 2020 10:51 am|    Updated: September 27, 2020 10:54 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিয়ের আর কয়েকটা মাস বাকি ছিল। কিন্তু সময় পেরিয়ে জীবনের সেই অধ্যায় শুরুর আগেই সব শেষ। নিউটাউনে (New Town) পথ দুর্ঘটনায় (Accident) শনিবার রাতে মৃত্যু হল প্রেমিক যুগলের। সল্টলেক থেকে চিনার পার্কের দিকে যাওয়ার পথে তাঁদের স্কুটিতে লরির ধাক্কায় ঘটে দুর্ঘটনা। মৃতদেহ দুটি উদ্ধারের পর ঘাতক লরির খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে নিউটাউন থানার পুলিশ।

New-Town
মৃতা মেধা পাল

জানা গিয়েছে, তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী তথা বরাহনগর স্পোর্টিং ক্লাবের ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন দীপায়ন মুখোপাধ্যায় প্রেমিকা মেধা পালকে নিয়ে শনিবার বেরিয়েছিলেন। মেধাও তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী। কর্মসূত্রে বেঙ্গালুরুতে থাকেন। লকডাউনের আগে ছুটিতে বিরাটির বাড়িতে ফিরেছিলেন। এরপর আর বেঙ্গালুরুতে না ফিরে ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছিলেন। প্রতি শনিবারই দীপায়ন-মেধা দেখা করেন, সারাদিন একসঙ্গে কাটান। এদিনও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। সারাদিন ঘুরে, খাওয়াদাওয়া করে রাতে ফেরার সময়েই দুর্ঘটনার মুখে পড়েন তাঁরা। তাতেই শেষ হয়ে যায় দু’জনের জীবন। অধরা থেকে যায় দাম্পত্য জীবনের স্বপ্ন।

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পল, নিজেই জানালেন টুইটে]

পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার সল্টলেকের দিক থেকে চিনারপার্কের দিকে যাওয়ার সময় বিশ্ববাংলা গেটের কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। দীপায়ন, মেধার স্কুটির পিছনে একটি লরি আসছিল। লরিটি পিছন থেকে স্কুটিকে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। দু’জন ছিটকে পড়েন রাস্তায়। খবর পেয়ে তড়িঘড়ি পুলিশ অ্যাম্বুল্যান্স নিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে যায়। দু’জনকে পরীক্ষার পর চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঘাতক লরির খোঁজ চালাচ্ছে নিউটাউন থানার পুলিশ।

[আরও পড়ুন: কলকাতায় বানজারা গ্যাংয়ের দাপট, অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপকের টাকা হাতাল কিশোর-কিশোরীরা]

মৃতদের পরিবারের সূত্রে খবর, সামনের বছর দু’জনের বিয়ে ঠিক হয়েছিল। কিন্তু তার আগেই এমন এক মর্মান্তিক পরিণতি। পরিবারের সদস্যরা এখনও বিশ্বাসই করতে পারছেন না যে তাঁদের সন্তানরা আর নেই। খবর পেয়ে স্তব্ধ দীপায়ন-মেধার বন্ধুবান্ধবরাও। তরতাজা দুটি প্রাণের সঙ্গে লরির চাকায় যে পিষ্ট হয়ে গেল তাঁদের জীবনের স্বপ্নগুলোও, এটা মেনেই নিতে পারছেন না ঘনিষ্ঠরা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement