৯ মাঘ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুরুটা করেছিল রিলায়েন্স জিও। এবার সেই পথই অনুসরণ করতে হল ভোডাফোন-আইডিয়া এবং ভারতী এয়ারটেলকে। জিও গ্রাহকদের মতো এবার ওই দুই টেলিকম সংস্থার প্রিপেড ইউজারদেরও অন‌্যান‌্য নেটওয়ার্কে ভয়েস কল করতে হলে গাঁটের কড়ি খরচ করতে হবে। অর্থাৎ আনলিমিটেড ফ্রি ভয়েস কল পরিষেবা বলে আর কিছু রইল না।

৩ ডিসেম্বর মানে মঙ্গলবার থেকে ফ্রি মিনিটের মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়ার পর আউটগোয়িং কলের জন‌্য মিনিট প্রতি ৬ পয়সা করে দিতে হবে ভোডাফোন-এয়ারটেলের গ্রাহকদেরও। জিও, ভোডাফোন-আইডিয়ার পর এবার ভারতী-এয়ারটেলের প্রিপেড পরিষেবায় ভয়েস কল ও ইন্টারনেটের খরচ বাড়ানো হচ্ছে। রবিবার সংস্থার পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ৩ ডিসেম্বর থেকেই নতুন এই হার কার্যকরী হবে। অর্থাৎ আজ মধ্যরাতের পর থেকেই কল ও ইন্টারনেট পরিষেবার জন্য বেশি টাকা গুনতে হবে গ্রাহকদের। একই সঙ্গে জিও ও ভোডাফোন-আইডিয়ারও নতুন হারে মাসুল কার্যকর হবে ৩ ডিসেম্বর থেকে।

[আরও পড়ুন: তাড়াতাড়ি সেরে উঠতে ডেঙ্গু রোগীর ডায়েট চার্টে থাক এই খাবারগুলি]

ভোডাফোনের মতো এয়ারটেলও ৪২ শতাংশ পর্যন্ত দামি করেছে ট্যারিফ। যার অর্থ আনলিমিটেড শ্রেণিতে এয়ারটেল প্রিপেড গ্রাহকরা এখন যা খরচ করেন, তার চেয়ে ৪২ শতাংশ বেশি খরচ করতে হবে। ভারতী এয়ারটেল সূত্রে জানা গিয়েছে, আনলিমিটেড কল ও ইন্টারনেট পরিষেবা নিতে এখন যে খরচ হয়, তা প্রতিদিনের হিসাবে ৫০ পয়সা থেকে ২ টাকা ৮৫ পয়সা পর্যন্ত বাড়তে পারে। এয়ারটেল থেকে অন্য নেটওয়ার্কে আনলিমিটেড কলের ক্ষেত্রে ‘ফেয়ার ইউসেজ পলিসি’ প্রয়োগ করা হবে। অর্থাৎ কলের সংখ্যা নির্দিষ্ট করে দেওয়া হবে। তার পরে কল করলে অতিরিক্ত হারে মাসুল দিতে হবে। সেই অঙ্ক হতে পারে মিনিটে ৬ পয়সা। সেখানে জিও গ্রাহকদের খরচের পরিমাণ তুলনামূলক কম।

মোবাইল পরিষেবায় মুকেশ অম্বানির সংস্থা ‘রিলায়েন্স জিও’র সঙ্গে টক্কর দিতে গিয়ে কার্যত নাভিশ্বাস উঠছে অন্য টেলিকম সংস্থাগুলির। জিওর তরফে জানানো হয়েছে, কোম্পানির নয়া অল ইন ওয়ান পরিষেবা চালু হবে চলতি মাসের ৬ তারিখ। আনলিমিটেড ভয়েস কল ও ডেটা পরিষেবা পেতে খরচ ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেলেও নিজেদের প্রতিশ্রুতি রেখেছে জিও। তাদের কাছে গ্রাহকের সুবিধাই সর্বাগ্রে। আর সে কথা মাথায় রেখে নয়া প্ল্যানে ৩০ শতাংশ অতিরিক্ত সুবিধা দেওয়া হবে। মুকেশ আম্বানির সংস্থা বুঝিয়ে দিতে চাইল, খরচ বাড়লেও দিনের শেষে লাভবান হবেন জিও গ্রাহকরাই।

[আরও পড়ুন: ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারে ভয়? মন থেকে দূর করুন এই পাঁচ ভুল ধারণা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং