৩১ শ্রাবণ  ১৪২৬  শনিবার ১৭ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আঙুলের ছোঁয়ায় বদলে যায় পৃথিবী। স্মার্ট হয়েছে দুনিয়া। নিত্যনতুন স্মার্টফোনের ঘনঘটা। ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রামেই জোকের মতো আটকে থাকে দু’জোড়া চোখ। দিন নেই, রাত নেই। পাঁচ-সাড়ে পাঁচ ইঞ্চির স্ক্রিনের দিকেই তাকিয়ে পৃথিবী। রাতের অন্ধকারেও রেহাই নেই। চলতে থাকে পছন্দের ভিডিওর স্ট্রিমিং। আর এতেই মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে চোখের। সাম্প্রতিক এক গবেষণার রিপোর্টে চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁদের মতে, অন্ধকারে বেশিক্ষণ ধরে মোবাইলের দিকে তাকিয়ে থাকলে একটি নির্দিষ্ট সময়ের পর মানুষের অন্ধ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

কিন্তু কেন এমনটা হয়?

গবেষকরা বলছেন, মোবাইলের স্ক্রিনে যে তীব্র নীল রঙের আলো থাকে (Blue Light)। তা সরাসরি রেটিনায় প্রভাব ফেলে। এর ফলে ফটোরিসেপ্টর সেল নষ্ট হতে থাকে। যা নতুন করে জন্মাতে পারে না। যার জেরে ম্যাক্যুলারের অবক্ষয় হয়। দীর্ঘদিন এমনটা হতে থাকলে ব্যক্তি দৃষ্টিশক্তিই হারাতে পারে। এতে চোখের নানা সমস্যাও দেখা দেয়।

[সুখবর, এবার স্বল্প খরচেই অনলাইনে ভাড়া পাওয়া যাবে স্মার্টফোন]

তাহলে কী করণীয়?

  • সবার প্রথমে অবশ্যই ল্যাপটপ, মোবাইল কিংবা ডেস্কটপের ব্যবহার প্রয়োজন ছাড়া কমাতে হবে।
  • অন্ধকার অথবা কম আলোতে এই জিনিসগুলি ব্যবহার একদমই করবেন না। রাতের বেলা কাজ করতে হলে কিংবা কোনও ভিডিও দেখতে হলে ঘরের লাইট জ্বালিয়ে রাখবেন।
  • একান্ত যদি এমনটা না করতে পারেন তাহলে সমস্ত প্রকারের ডিজিটাল ডিভাইসের জন্য ব্লু লাইট ফিল্টার ব্যবহার করবেন। এতে আপনার চোখ কিছুটা হলেও বাঁচবে।
  • রাতের বেলা শোয়ার সময় মোবাইল পাশে নিয়ে শোবেন না। পাশে মোবাইল থাকলেই নোটিফিকেশন আসতে থাকবে। এতে আপনার মন চঞ্চল হয়ে উঠবে ভারচুয়াল জগতে নতুন কী আপডেট হল দেখার। তা করতে করতেই নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়বেন। রাতের ঘুমও সম্পূর্ণ হবে না। ফলে আপনার শরীরও খারাপ হতে থাকবে। তাই রাতের বেলা যতটা পারবেন নিজের থেকে ডিজিটাল ডিভাইসগুলো দূরে রাখবেন।  

[ভুলেও এই পাসওয়ার্ডগুলি ব্যবহার করছেন না তো? সাবধান!]

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং