BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

রান্নাঘরের টুকিটাকি দিয়ে তৈরি করুন জিভে জল আনা হরেক পদ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 28, 2019 4:33 pm|    Updated: January 28, 2019 4:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বিয়েবাড়ির সিজন চলছে। রোজই হয় লাঞ্চ নয়তো ডিনারে ভারী, মশলাদার খাবারদাবার খাচ্ছেন? অনেকেরই বাড়ির রান্না আর বিশেষ মুখে রুচছে না। আবার কেউ কেউ ভাবছেন, বাড়িতে হালকা খাবারই ভাল। শরীর বেগড়বাই করবে না। তাহলে দু’ধরনের পাঠকের জন্যই রইল কয়েকটা রেসিপি। স্বাদেও ষোল আনা, আবার স্বাস্থ্যের দিকেও নো চিন্তা। রান্নাঘরের প্রতিদিনকার উপকরণ দিয়ে ঘড়ির কাঁটা একপাক ঘোরার আগেই প্লেট সেজে উঠবে রকমারি মুখরোচক খাবারে৷ 

১. আলু কুরকুরে – আলু ছোটো ছোট টুকরো করে নিন। একটি পাত্রে আলুর টুকরো, পুদিনা পাতা, কাঁচা লঙ্কা, ধনে গুঁড়ো, লেবুর রস নিন৷ এবার ভাল করে সবটা মিশিয়ে নিন। আরেকটি পাত্র নিন৷ তাতে ময়দা বা বেসন নিয়ে পরিমাণমতো জল মিশিয়ে তৈরি করুন ব্যাটার। এবার তাতে সরিয়ে রাখা মিশ্রণ থেকে আলুর টুকরোগুলি নিয়ে, ব্যাটারে ডুবিয়ে তেলে ডিপ ফ্রাই করে নিন। প্লেটে গরমাগরম সাজিয়ে পুদিনার চাটনি বা টমেটো কেচআপ দিয়ে দুর্দান্ত ইভিনিং স্ন্যাকস।   

alookurkure

২. মেথি পকোড়া – মেথি শাক কুচিয়ে কেটে ফেলুন। কাটা শাক, বেসন, আদা কুচি, লঙ্কা কুচি, পেঁয়াজ কুচি, খাবার সোডা, দই, জোয়ান গুঁড়ো – সব দিয়ে ভালো করে মিশ্রণ তৈরি করুন। প্রয়োজনে সামান্য জল মেশান। তবে মিশ্রণ যেন খুব পাতলা না হয়ে যায়, সেদিকে নজর রাখতে হবে। একটি কড়াইয়ে তেল নিয়ে আঁচে বসান। মিশ্রণ থেকে পকোড়ার আকারে বল তৈরি করে ভাজুন। যতক্ষণ না বলের রং সোনালি হচ্ছে, ততক্ষণ আভেনের আঁচ বাড়িয়ে ভাজতে হবে। শীতের সন্ধে জমে যাবে মেথি পকোড়ায়।

                                             [ রোজ ঘি খাওয়া কি ভাল? কী বলছেন চিকিৎসকরা?]

methi-pakora

৩. তড়কা রাইস – নাম শুনে ঘাবড়াবেন না। মোটেই কঠিন কিছু নয়, মশলাদারও নয়। অনেক সময়েই হাঁড়িতে বাড়তি ভাত থেকে যায়। তাকেই কাজে লাগিয়ে বানিয়ে ফেলা যায় তড়কা রাইস। অল্প তেলে গোটা জিরে, সরষে আর লঙ্কা গুঁড়ো দিয়ে একটু নেড়েচেড়ে নিন। এবার তাতে মিশিয়ে দিন ওই রয়ে যাওয়া ভাত। চাইলে ধনেপাতার কুচিও দিতে পারেন। এতেই তৈরি হয়ে গেল তড়কা। এটা মারাঠি পদ হিসেবে বেশ জনপ্রিয়।

tadka-rice

                                   [পাস্তা, শ্রিম্প, মাশরুমে শীতের ডিনারের স্বাদ বদলের কয়েকটি টিপস]

এবার চট করে দেখে নিন শেষ পাতে ডেজার্টের দুটি পদ।

৪. আনারদানা রায়তা – দই ঘন করে চিরাচরিত পদ্ধতিতে তৈরি করে নিন রায়তা। একে আরও স্বাস্থ্যকর করে তুলতে যোগ করুন বেদানার রস, পরিমাণমতো নুন, এক চিমটে গোলমরিচ গুঁড়ো। এরপর বেদানা ছড়িয়ে দিন। উপরে এক থেকে দু’চামচ টক দই দিন। ব্যস, তৈরি আনারদানা রায়তা। রোজকার রায়তার স্বাদ ভুলিয়ে দেবে এই নতুন রেসিপি।

anardana-raita

৫. শাহি টুকরা – স্যান্ডউইচ খেতে খেতে একঘেয়ে হয়ে যাচ্ছেন?  তাহলে আপনার জন্য রইল স্যান্ডউইচের ভিন্ন রেসিপি। যা আসলে একটি মিষ্টি পদ। স্যান্ডউইচের মতো করে কেটে ফেলুন পাঁউরুটি। একটি বাটিতে নিন ঘন রাবড়ি। তাতে আমন্ড, পেস্তা, কাজু, এলাচ গুঁড়ো৷ তার মধ্যে পাঁউরুটির স্লাইসগুলো ডুবিয়ে দিন। ২ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে পাতে দিন এই স্পেশাল ডেজার্ট। আপনার সারাদিনের খাওয়ায়, যাকে বলে একেবারে মধুরেণ সমাপয়েৎ, হবেই হবে।

shahi-tukra

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement