BREAKING NEWS

২ মাঘ  ১৪২৭  শনিবার ১৬ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডে দু’ঘণ্টার বেশি বেঁচে থাকে করোনা ভাইরাস, দাবি গবেষণায়

Published by: Avijit Das |    Posted: January 6, 2021 4:54 pm|    Updated: January 6, 2021 5:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্কবায়ুমণ্ডলে করোনা ভাইরাসের স্থায়িত্ব নিয়ে ইতিমধ্যে বিস্তর গবেষণা হয়েছে। এবার একটি গবেষণায় জানা গিয়েছে যে হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডে টানা দু’ঘণ্টার বেশি বাঁচতে পারে এই মারণ ভাইরাস (Corona Virus)। সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজি (সিসিএমবি)  ও ইনস্টিটিউট অফ মাইক্রোবিয়াল টেকনোলজির (সিএসআইআর) একটি যৌথ গবেষণায় এই বিষয়টি উঠে এসেছে। কোভিড ওয়ার্ডের মধ্যে যে বায়ুমণ্ডল, তাতে মিশেই এতটা সময় বেঁচে থাকে এই ভাইরাস। 

[আরও পড়ুন: ‘জাতিস্মর’-এর হিন্দি রিমেকে গালিবের জীবন, সৃজিতের ছবির সুরকার রহমান

তবে বাতাসে এই ভাইরাস কতটা পরিমাণ থাকবে, তার পুরোটাই নির্ভর করছে সেই কোভিড ওয়ার্ডে রোগীর সংখ্যার উপর। যত বেশি রোগী একটি কোভিড ওয়ার্ডে (Covid ward) থাকবেন সেখানে ভাইরাসের মাত্রাও তত বেশি। এছাড়াও ভরতি হওয়া রোগীদের মধ্যে সংক্রমণের মাত্রা কতখানি রয়েছে তার উপর নির্ভর করবে সেই ওয়ার্ডে ভাইরাসের পরিমাণ। কাজেই, সেখানে যদি কোনও সুস্থ ব্যক্তি অনেকক্ষণ সময় কাটান, তাহলে তাঁর সংক্রমণের মাত্রাও কয়েকগুণ বেড়ে যায় বলেই ধারণা গবেষকদের। এ ক্ষেত্রে রোগীর থেকে দুই মিটারের দূরত্ব বজায় রেখেও কোনও লাভ হবে না বলেই মত তাঁদের।  

উপসর্গহীন (Asymptomatic) রোগীদের কথাও বলা হয়েছে এই গবেষণায়। তাঁরা যদি ঘরের একটি জায়গায় বসে থাকেন, তবে সেখান থেকে এই ভাইরাস ছড়ানোর কোনও সুযোগ নেই বলে দাবি করা হয়েছে। কিন্তু সেই ঘরে যদি ফ্যান বা এসি চলে, তাহলে সেক্ষেত্রে এই সংক্রমণের আশঙ্কা অনেক বেশি। 

হায়দরাবাদ (Hyderabad) ও চণ্ডীগড়ের (Chandigarh) তিনটি হাসপাতাল থেকে বায়ুমণ্ডলের নমুনা পরীক্ষা করা হয় এই গবেষণায়।  সিসিএমবির তরফে জানানো হয়েছে, এই নমুনা জোগাড় করে আরটি-পিসিআর (RT-PCR) পদ্ধতিতে তার পরীক্ষা করে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পেরেছেন গবেষকরা। আর তাই ফের একবার জনগণকে সতর্ক করে কোভিড বিধি অক্ষরে অক্ষরে পালন ও মাস্ক ব্যবহারের কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন সিসিএমবির ডিরেক্টর রাকেশ মিশ্র (Rakesh Mishra)। 

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশের লাভ জেহাদ বিরোধী আইন কি আদৌ বৈধ? খতিয়ে দেখবে সুপ্রিম কোর্ট]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement