BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জরায়ু মুখের ক্যানসার প্রতিরোধে সাফল্যের দাবি, আশা জাগাচ্ছে ভারতে তৈরি ভ্যাকসিন

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: September 1, 2022 6:40 pm|    Updated: September 1, 2022 9:12 pm

Serum Institute of India demnads of making first indigenous vaccine for cervical cancer | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জরায়ু মুখের ক্যানসার (Cervical Cancer) প্রতিরোধে কয়েক ধাপ এগিয়ে গেল ভারত। দেশেই ক্যানসার প্রতিরোধের ভ্যাকসিন তৈরি হওয়ার দাবি। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে তা ঘোষণা করা হল। সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া (Serum Institute of India) এবং বায়োটেকনোলজি মন্ত্রকের যৌথ উদ্যোগেই এই ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছে। কয়েক মাসের মধ্যেই বাজারে পাওয়া যাবে এই ভ্যাকসিন। ২০০ টাকা থেকে ৪০০ টাকার বিনিময়ে এই ভ্যাকসিন কিনতে পারবেন সাধারণ মানুষ। প্রসঙ্গত, ১৫ থেকে ৪৫ বছর বয়সি মহিলাদের মধ্যেই জরায়ু মুখের ক্যানসারের প্রবণতা বেশি থাকে।

সিরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ার প্রধান আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছেন, সাধারণ মানুষের আয়ত্তের মধ্যেই ভ্যাকসিনের দাম নির্ধারণ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রাথমিক ভাবে ২০০-৪০০ টাকা দাম রাখার কথা হয়েছে। তবে এই বিষয়ে চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরের শেষের দিকেই সাধারণ মানুষের হাতে চলে আসবে এই ভ্যাকসিন। তবে প্রথম এক বছর সরকারের মাধ্যমেই ভ্যাকসিন কিনতে হবে। তারপর থেকে বেসরকারি জায়গা থেকে ভ্যাকসিন কেনা যাবে। 

[আরও পড়ুন: সাড়ে তিন বছর ধরে দুই নাবালিকাকে ধর্ষণ! ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে লুকআউট নোটিস]

আপাতত এই ভ্যাকসিন (Cervical Cancer Vaccine) বিদেশে রপ্তানি করার পরিকল্পনা নেই সিরাম কর্তৃপক্ষের। প্রাথমিকভাবে প্রায় কুড়ি কোটি ডোজ তৈরি করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগোচ্ছে আদর পুনাওয়ালার সংস্থা। বিজ্ঞানমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং বৃহস্পতিবার এই ভ্যাকসিন উদ্বোধন করেন। তিনি বলেছেন, “কোভিডের পরে স্বাস্থ্য সম্পর্কে মানুষের সচেতনতা বেড়েছে। তাই ক্যানসারের মতো রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষেত্রেও মানুষ বেশ উৎসাহী। আয়ুষ্মান ভারতের মতো প্রকল্পগুলির মাধ্যমে স্বাস্থ্যক্ষেত্রে ভারত যথেষ্ট উন্নতি করেছে। চিকিৎসার জন্য অন্যদের উপরে আমাদের আর নির্ভর করতে হয় না।”

বায়োটেকনোলজি মন্ত্রকও এই ভ্যাকসিন তৈরিতে সহযোগিতা করেছে। মন্ত্রকের সচিব রাজেশ গোখলে জানিয়েছেন, প্রায় দু’হাজার স্বেচ্ছাসেবকের উপর এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করার পরেই সাধারণ মানুষের ব্যবহারের জন্য সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছে। তাঁর মতে, সকলের কাছে যেন ভ্যাকসিন পৌঁছে দেওয়া যায়, সেই বিষয়ে সরকারি-বেসরকারি দুই প্রতিষ্ঠানকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আধিকারিকদের মতে, নতুন এই ভ্যাকসিনে অন্যদের তুলনায় প্রায় ১০০০ গুণ বেশি ক্যানসার প্রতিরোধক ক্ষমতা রয়েছে।

[আরও পড়ুন: স্ত্রী উপোস করায় ডাক্তারের আসতে দেরি, জব্বলপুরে মায়ের কোলেই মৃত্যু ৫ বছরের ছেলের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে