BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  রবিবার ২৯ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিজের চাহিদা সম্পর্কে সচেতন থেকেও কীভাবে হবেন ভাল প্রেমিকা? রইল টিপস

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 9, 2020 6:18 pm|    Updated: November 9, 2020 10:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রেমে পড়লে মানুষ কত কিছুই না করেন। মনের মানুষের হাসিমুখই যেন তাঁর জীবনে তখন সবচেয়ে বড় জিনিস। আর ভালবাসার মানুষকে খুশি করতে নিজেকে ঠিক তাঁর মতো করে তৈরি করে নিতেও কোনও দুঃখ নেই। অনেক মহিলার অবশ্য সে সম্পর্কে ভুল ধারণাও রয়েছে। তাঁরা ভাবেন নিজের ইচ্ছা, পছন্দ, চাহিদা সবই তখন জলাঞ্জলি দিয়ে মনের মানুষের খাপ খাওয়াতে হবে। তাই তার মরিয়া চেষ্টাও শুরু করেন তাঁরা। তাতে হয়তো আপাতদৃষ্টিতে প্রেমের গাড়ি তড়তড়িয়ে এগোতে থাকে। কিন্তু প্রেমিক যেদিন জানতে পারেন তাঁর জন্যই ভালবাসার মানুষটি সর্বস্ব ত্যাগ করেছেন, তখন তাঁরও খারাপ লাগা কিছু কম তৈরি হয় না। তাই তখনই সম্পর্কে তৈরি হয় জটিলতা। তার চেয়ে এত জটিলতার প্রয়োজন নেই। বরং জেনে নিন কীভাবে নিজের চাহিদা সম্পর্কে সচেতন থেকেও একজন ভাল প্রেমিকা (Girlfriend) হওয়া যায়, রইল টিপস।

Couple

ভাল প্রেমিকা হয়ে ওঠার জন্য সবার প্রথম নিজস্ব চাহিদা সম্পর্কে আপনাকে সচেতন হতে হবে। যেটা আপনি পছন্দ করেন না সেটা স্পষ্টভাবে মনের মানুষকে বলতে হবে। সবসময় হয়তো আপনি যা চাইছেন, তা প্রেমিকের পছন্দের সঙ্গে মিলতে নাও পারে। কিন্তু সবক্ষেত্রেই আপনার চাহিদা অবহেলিত হচ্ছে কিনা, সেদিকে খেয়াল রাখুন। যদি দেখেন দু’জনের চাহিদা একেবারেই মিলছে না, তাহলে সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

Lover

[আরও পড়ুন: সতেরোর কিশোরীকে বিয়ে আটাত্তরের বৃদ্ধর, মাত্র ২২ দিনেই ভাঙল সংসার]

দু’জন দু’জনকে যতটা পারেন সময় দিন। একঘেয়ে প্রেমের কথা বলতে বলতে ক্লান্ত হয়ে উঠলে ভাললাগা, মন্দলাগা একে অপরের সঙ্গে ভাগ করে নিন। কী খেতে, কোথায় বেড়াতে যেতে ভালবাসেন সবকিছুই ভাগ করে নিতে পারেন। আবার ঠিক তেমনই কোন জিনিসগুলি আপনি ভালবাসেন না, তাও মনের মানুষকে জানিয়ে রাখুন। তাঁর পছন্দ-অপছন্দও জেনে নিতে ভুলবেন না। তাতে দেখবেন দু’জনের সম্পর্কের বাঁধন অনেক বেশি শক্ত হবে।

Love

সমাজ যতই এগিয়ে যাক না কেন এখনও বহু পুরুষেরই তাঁদের প্রেমিকাকে দমিয়ে রাখার অভ্যাস রয়েছে। সম্পর্কের শুরু থেকেই বুঝিয়ে দিন আপনি একজন সম্পূর্ণ আলাদা আদর্শে বেড়ে ওঠা মানুষ। তাঁকে বোঝান আপনারও একটা আলাদা জগৎ রয়েছে। তাঁদের সঙ্গে আপনি প্রয়োজনে দেখা করতে পারেন, কথাও বলতে পারেন। তেমনই আবার আপনার মনের মানুষেরও আলাদা জগৎ থাকাই স্বাভাবিক। দু’জনেই চেষ্টা করুন কারও ব্যক্তিগত জগতের মধ্যে ঢুকে না পড়ার। তাতেই দেখবেন দিনে দিনে আরও সুন্দর হয়ে উঠবে আপনাদের পথচলা।

Couple Love

[আরও পড়ুন: যৌনতার থেকেও অন্তরঙ্গ বালিশে মাথা রেখে গপ্প, কেন এ কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement