২৭ কার্তিক  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৭ কার্তিক  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৪ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনামাটির বাসনের প্রতি মহিলা মহলের এক চিরন্তন ভাললাগা রয়েছে। তাই কিটি পার্টি হোক বা ডিনারের আমন্ত্রণ, কাচ, মেলামাইনের থেকে কৌলিন্যে এগিয়ে রয়েছে চিনামাটি। সেজন্য চিনামাটির বাসন সাজিয়ে অতিথি আপ্যায়নের একটা আলাদা মর্যাদা আছে। এই যেমন রায়বাবু, প্রমোশন পেতে বাড়িতে ডিনার পার্টি রাখলেন। সেখানেও কিন্তু সেই চিনামাটির অবধারিত প্রবেশ। অফিসের বসকে খুশি করতে ঘরনির হাতে রান্নার ভার ছেড়ে নিশ্চিন্ত হয়েছেন রায়বাবু। কিন্তু পার্টিতে সহকর্মীদের চমক তো দিতেই হয়। বউয়ের রান্নার খেয়ে বস খুশি হবেন নিশ্চিত। কিন্তু অন্যদের হিংসার কারণ হতে হলে আর একটু এগিয়ে ভাবতে হবে। সেকারণেই চিনামাটির ডিনার সেটটি বেছে নিয়েছেন।  সেই যে গেল বছর অনলাইনে রীতিমতো অর্ডার দিয়ে আনানো ডিনার সেট। এক নজরে চোখ আটকে যাওয়া জিনিসে সহকর্মীরা কেমন ঈর্ষান্বিত হন, দেখতে চাইছেন রায়বাবু। তাহলে বুঝতে পারছেন, চিনামাটির বাসনের কদর কতটা। তাই পরিচারিকার হাতে সেসব বাসনের ভার দিয়ে নিশ্চিন্তে বসে না থাকাই ভাল। একটু অন্যমনস্ক হলেই দিবাস্বপ্নের মতো খানখান হয়ে যাবে প্রিয় প্লেট বা বাটি।

প্রাণপ্রিয় ডিনার সেটটি কী করে যত্নে রাখবেন?

পার্টির শেষে রায়বাবু তো দারুণ খুশি উতরে গিয়েছে পরিকল্পনা। এবার সস্ত্রীক বিদেশভ্রমণ বাঁধা। খুশি রায়গিন্নিও। তাবলে অতিথি অভ্যাগতরা চলে গেলে তিনি চুপচাপ বসে থাকেননি। রীতিমতো ঝকঝকে ডিনার সেটটি শোকেসে পুরে তবেই তাঁর কাজ শেষ হল। আচ্ছা ডিনার সেট যত্নে রাখতে কী কী করলেন তিনি, একবার দেখে নেওয়া যাক।

[ঘরের গাছে কখন জল দেবেন, যত্নই বা নেবেন কীভাবে?]

অল্প জায়গায় ডিনার সেটকে এঁটে ফেলার চেষ্টা করবেন না। পোর্শেলিনের পেলব আস্তরণ, তাতে ঘষে যেতে পারে। নষ্ট হতে পারে চিনামাটির স্বাভাবিক সৌন্দর্যও। সেকারণেই খুব সাবধানে দুটি প্লেটের মাঝে রাখুন নরম কাগজ বা টিস্যু পেপার। তাহলে একটি আর একটি সঙ্গে ঘষা খেয়ে সৌন্দর্যহানির সম্ভাবনা থাকবে না বললেই চলে। টিস্যুতে মুড়িয়ে সেফগার্ড দিয়েছেন বলে একটির পর আর একটি প্লেট সাজাবেন না। তাহলে যে কোনও মুহূর্তে ভারসাম্য হারিয়ে প্লেটের রাশি আছড়ে পড়তে পারে। তখন আপশোসের সীমা থাকবে না। দুটি তিনটি প্লেট বা বাটি এক একটা সারিতে রাখতে পারেন। তবে চারটের বেশি একদম নয়।

ডিনারের পর প্লেটগুলি ধোয়ার সময় অবশ্যই ইষদোষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন বাসনপত্র। কেননা চিনামাটির বাসন তৈরির মূল উপকরণ প্রাণীর হাড়। তার সঙ্গে মেশে বিভিন্ন মিনারেল। তাই বেশি ঠান্ডা বা গরমজলে বাসনের ক্ষতি হতে পারে। সেই ক্ষতি এড়াতেই এই পন্থা নেওয়া যেতে পারে। বাসন ধোয়ার সময় সাবানের কারণে বেসিনে পিছলে পড়তে পারে সাধের প্লেট। তাই আগে থেকে বেসিনে বিছিয়ে রাখুন রাবারের কোনও আস্তরণ বা তোয়ালে। তাহলে হাত ফসকে প্লেট পড়লেও ভাঙার ভয় থাকবে না। এবার বাসন ধোয়ার পালা মিটলে মোছার প্রসঙ্গ আসে। প্লেট মুছতে গেলেও পড়ার ভয়। তাই শুকনো তোয়ালের মধ্যে ধোয়া বাসনকোসন উপুড় করে রাখুন। বেশিরভাগ জল ওই তোয়ালেই শুষে নেবে। এভাবে আধঘণ্টা কাটলে এক এক করে সমস্ত বাসন মুছে নিরাপদ স্থানে সাজিয়ে রাখুন।

[দস্যির দেওয়াল আঁকিবুঁকিতে নষ্ট হচ্ছে? রইল সমাধান]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং