BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

পর্যাপ্ত ঘুমই দুরন্ত যৌন জীবনের চাবিকাঠি, মত বিশেষজ্ঞদের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: March 20, 2018 6:12 pm|    Updated: March 20, 2018 6:14 pm

Sound sleep boosts conjugal life: Report

কোয়েল মুখোপাধ্যায়: ‘ঘুমাও, ও চাঁদ ঘুমাও। ঘুমাও, ও ফুল ঘুমাও। আমরা দু’জন আজকে রাতে থাকব শুধু জেগে…’ ভুল করছেন। শুধু চাঁদ-ফুল-ঝিঁঝিঁপোকা আর জোনাকিকে ঘুমোতে বললে হবে? ঘুমটা তো আপনাদেরও দরকার না কি!

[ল্যাপটপে মুখ গুঁজে থাকা স্বভাব! জানেন কী বিপদ ডেকে আনছেন?]

পর্যাপ্ত ঘুম শুধু শরীরকেই তরতাজা রাখে না, যৌন জীবনকেও আরও উত্তেজক করে তোলে। মাত্রারিক্ত স্ট্রেস আর টেনশনকে দূরে ঠেলে রতিক্রিয়া উপভোগ করতে দিনে ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা ঘুম একান্ত জরুরি। লম্বা ঘুম আর দুরন্ত যৌন জীবন যে একে অপরের পরিপূরক! এই দু’য়ের সম্পর্ক সমানুপাতিক। সেক্সোলজিস্ট লরি মিন্টজ জানিয়েছেন, পুরুষ হোক বা নারী, কর্মব্যস্ত দিনের শেষে যদি রাতে ঘুমটা ঠিক মতো না হয়, তাহলে মেজাজ বিগড়ে যায়। শুধু শরীরে নয়, মনটাও ক্লান্ত হয়ে পড়ে। তাই যৌন মিলনের তাগিদটাই হারিয়ে ফেলেন অনেকেই।

[ভার্জিনিটি হারানোর পর নারীদেহে যে ৭টি পরিবর্তন আসে]

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, রাতে পর্যাপ্ত ঘুমের অভাবে পুরুষদের দেহে টেস্টোস্টেরন হরমোনের ক্ষরণ হ্রাস পায়। আর একথা তো সকলেই জানেন যে, এই টেস্টোস্টেরন হরমোন পুরুষদের যৌন আকাঙ্ক্ষা জাগিয়ে তোলে। মজার ব্যাপার হল, ঘুম যেমন আপনার যৌন জীবনের উপর প্রভাব ফেলে, তেমনি আবার আপনার যৌন জীবনই রাতের ঘুমকে সুখময় করে তুলতে পারে। কীরকম? সেক্সোলজিস্ট ইয়ান কার্নারের দাবি, পুরুষ হোক কিংবা মহিলা, শারীরিক মিলন যত কম হবে, ততই বাড়তে থাকবে অনিদ্রা। যৌনতার পর যে মহিলাদের শরীরে স্ট্রেস হরমোন কর্টিলেসের ক্ষরণ কমে যায়, এ নিয়ে বিজ্ঞানীর মধ্যে কোনও দ্বিমত নেই। এটা প্রমাণিত সত্য। তাই শারীরিক মিলন যতই তুখড় হবে, ততই মহিলাদের ‘স্ট্রেস’ কমবে। আর দৈনন্দিন জীবনে যদি স্ট্রেস কমিয়ে ফেলা যায়, তাহলে নিশ্চিন্তের ঘুম আসতে বাধ্য। অতএব? সম্ভোগের চরম আনন্দ পেতে এবার থেকে ঘুমের মেয়াদ বাড়ান।

[গরমে ট্রেন্ডি থাকতে চান? রইল এই মরশুমের কিছু স্টাইলিং টিপস]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে